প্রকাশিত: ২৬/০৯/২০১৭ ১১:৫৩ এএম , আপডেট: ১৭/০৮/২০১৮ ১:০৪ পিএম

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ::
‘অ-বু, ইতারা দে, আর ওইতারা কাড়ে’। অর্থ্যাৎ আপা, এরা দিচ্ছেন আর আমাদের দেশের মিলিটারীরা কাড়ছে। মানব সেবায় বাংলাদেশ সেনা বাহিনীর ত্রাণ তৎপরতা ও শৃংখলা দেখে রোহিঙ্গারা প্রশংসায় পঞ্চমুখ। টেকনাফ এবং উখিয়া উপজেলার রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের প্রত্যেক পয়েন্টেই শনিবার ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশ সেনা বাহিনী কাজ করছেন। আগে যেসব রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ করেছেন, তাঁরা এ সুফল পাননি। বিশৃংখল, হয়রানী এবং লুটপাটের মাধ্যমে চলেছিল এতদিন। বর্তমানে শৃংখলায় ফিরছে।
মিয়ানমার সেনার বর্বর নির্যাতন, ধর্ষণ, কুপিয়ে হত্যা, গুলিতে হত্যা, লুটপাট ইত্যাদি বিভৎস হৃদয় বিদারক দুর্বিসহ যন্ত্রণাময় পরিস্থিতি অতিক্রম করে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করেই এখন রোহিঙ্গারা পাচ্ছেন বাংলাদেশ সেনা বাহিনীর সেবা। রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ঘুরে রোহিঙ্গাদের মাঝে পরস্পর আলাপচারিতায় এসব কথা শোনা যায়। ##

পাঠকের মতামত

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাঁচ মাসে ২৬ খুন

কক্সবাজারের উখিয়ার রোহিঙ্গা আশ্রয়শিবিরে খুন-অপহরণের মতো অপরাধ আশঙ্কাজনক হারে বেড়েছে। আশ্রয়শিবিরের নিয়ন্ত্রণ, আধিপত্য বিস্তার, মাদক ...

ছু'রি'কা'ঘাতে মৃ'ত্যুর পথযাত্রী যুবক,টাকা লুট অনিরাপদ ঘুমধুমের টিভি টাওয়ার গরুর হাট

কক্সবাজার-টেকনাফ মহাসড়ক লাগোয়া নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুমের টিভি টাওয়ার গরুর হাটে প্রতিনিয়তই ঘটছে অপ্রীতিকর ঘটনা। হাট ...

নিজের সম্মানির টাকা মেধাবী শিক্ষার্থীকে দিলেন নাইক্ষ্যংছড়ির ইউএনও

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাকারিয়া নিজের প্রাপ্ত সম্মানির টাকা আর্থিক অনুদান হিসেবে প্রদান করলেন ...