কোটি টাকার ইয়াবাসহ ভুয়া সাংবাদিক দম্পতি আটক

উখিয়া নিউজ ডেস্ক::
নিজেকে এশিয়ান নিউজ নামে একটি নিউজপোর্টালের প্রতিবেদক পরিচয় দিতেন বশির আহমেদ (২৮)। তিনি মাদক পাচারকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য হিসেবে গাজীপুর থেকে ইয়াবার চালান সংগ্রহ করে খুলনা পৌঁছে দিতেন। মাদকের চালান বহনের সময় ধরা পড়লে নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দেওয়ার জন্য আছে ভুয়া পরিচয়পত্রও।

আর এসব চালান পৌঁছে দিতে সব সময় সঙ্গে রাখতেন স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস রিবাকে (১৯)। কখনো আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা স্বামী-স্ত্রী ঘুরতে এসেছেন বলে জানাতেন। এই ভুয়া সাংবাদিক দম্পতি এভাবেই দীর্ঘদিন ধরে ইয়াবা ব্যবসা চালিয়ে আসছিলেন।

বুধবার (১০ এপ্রিল) দিনগত রাতে গাজীপুরের টঙ্গী এলাকায় অভিযান চালিয়ে সাংবাদিক পরিচয়ে ইয়াবা ব্যবসা করা দম্পতিসহ চার চোরাকারবারিকে আটক করে র‌্যাব-১। আটক বাকি দু’জন হলেন- রুবেল আহমেদ (৩৯) ও আনিসুর রহমান (২১)।

এসময় তাদের কাছ থেকে ৩২ হাজার ৫০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। যার বাজারমূল্য আনুমানিক দেড় কোটি টাকা। এছাড়া, তাদের কাছ থেকে ইয়াবা বিক্রির আট লাখ ৩৪ হাজার ৫০০ টাকা, ৬টি মোবাইল, ১টি পাসপোর্ট, ১টি ব্ল্যাংক চেক জব্দ করা হয়।

আটকদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব জানায়, আটক রুবেল আহমেদ বর্তমানে মেসার্স মিম এন্টারপ্রাইজ নামে একটি বেসরকারি কোম্পানির ম্যানেজার পদে চাকরিরত। ওই কোম্পানির মালিক রহমান খান রাহুলের প্রস্তাবনায় তিনি ইয়াবা ব্যবসায় জড়ান।

মালিক রাহুল চট্টগ্রামের রহমতউল্লাহর সঙ্গে রুবেলকে মোবাইল ফোনে পরিচয় করিয়ে দেন। রহমতউল্লাহর নির্দেশনা অনুযায়ী রাজধানীর রামপুরায় একজনের কাছ থেকে ইয়াবার চালান সংগ্রহ করেন রুবেল। পরে চালানটি আটক বশিরের কাছে হস্তান্তর করে নগদ অর্থ নেন।

বশির নিজেকে এশিয়ান নিউজ নামে অনলাইন পোর্টালের রিপোর্টার হিসেবে পরিচয় দিয়ে আসছিলেন। তিনি টঙ্গী এলাকায় রুবেলের কাছ থেকে চালান সংগ্রহ করে খুলনার মাদক ব্যবসায়ী রাজুর কাছে পৌঁছে দিতেন। চালানসহ চলাচলের সময় নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দেওয়ার জন্য একটি ভুয়া আইডিকার্ডও বানান।

বশির চালান বহনে সহযোগী হিসেবে তার স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস রিবাকে ব্যবহার করতেন। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীরা তাদের ধরলে স্বামী-স্ত্রী একসঙ্গে ঘুরতে এসেছেন বলে জানাতেন।

আটক আনিসুর রহমান পেশায় একজন বেলুন ব্যবসায়ী। এ ব্যবসার সূত্র ধরে বশিরের মাধ্যমে ইয়াবা ব্যবসায় জড়িয়ে পড়েন। বশির যখন স্ত্রীসহ ইয়াবার চালান নিয়ে খুলনা যেতেন তখন তাদের বডিগার্ড হিসেবে দায়িত্ব পালন করতেন আনিসুর।

র‌্যাব-১ এর স্কোয়াড কমান্ডার (সিপিসি-২) সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) সালাউদ্দিন জানান, এ চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে পরস্পরের যোগসাজশে ইয়াবার চালান চট্টগ্রাম থেকে ঢাকা হয়ে খুলনাসহ বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহ করে আসছিলেন। আটকদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন এবং চক্রের অন্য সদস্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

ad