ad

প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার ঋণের বোঝা বেড়ে গেল: কাদের

আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘মমতাময়ী মা’ সম্বোধন করে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘তার কাছে আমার ঋণের বোঝা আরও বেড়ে গেল।’

দীর্ঘ দুই মাস ১০ দিন সিঙ্গাপুরের চিকিৎসা শেষে বুধবার (১৫ মে) বিকাল ৫টা ৫০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

গত ৩ মার্চ হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার পর সিঙ্গাপুর যাওয়া থেকে চিকিৎসাসহ সব কিছুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজে তদারকি করেন। কাদের অসুস্থ হয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে যেদিন ভর্তি হন সেদিনও প্রধানমন্ত্রী হাসপাতালে উপস্থিত হয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য নির্দেশ দেন।

সাংবাদিকদের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এরকম সংকটে মধ্যে মা তার সন্তানের জন্যে যা করেন, আমাদের নেত্রী তাই করেছেন। তার কাছে কৃতজ্ঞতা জানানোর ভাষা আমার জানা নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘তিনি একজন মমতাময়ী মা, তিনি সত্যিই মাদার অব হিউম্যানিটি। তার কাছে আমার ঋণের বোঝা আরও বেড়ে গেল। বঙ্গবন্ধুর আরেক কন্যা শেখ রেহানা কোরআন শরীফ পড়ে আমার জন্য দোয়া করেছেন। তার কাছেও আমার কৃতজ্ঞতা।’

কাদের বলেন, ‘শুনেছি, আমার মতো মৃত্যুপথযাত্রী রোগীকে শেখ হাসিনা নাম ধরে ডেকেছিলেন। পরে শুনেছি শুধু তার ডাকে চোখ খুলে দেখেছি।’

কাদের আরও বলেন, ‘সকলের কাছে কৃতজ্ঞতা। জীবনটা আসলেই স্রোতের প্রতিকূলে চলার মতো। এই শিক্ষা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ও তার কন্যা শেখ হাসিনার কাছ থেকে পেয়েছি।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমি এই শিক্ষাও পেয়েছি, একজন রাজনীতিকের জীবনের সবচেয়ে বড় পাওয়া হচ্ছে মানুষের ভালোবাসা। বড় সম্পদ হচ্ছে মানুষের ভালোবাসা। কিছুটা হলেও এই শিক্ষা নিয়ে কাজ দিয়ে ভালোবাসা অর্জন করতে পেয়েছি।’

দলের বাইরে অন্য দলের নেতাকর্মীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘পার্টির বাইরেও অন্য দলের নেতৃবৃন্দ আমাকে দেখতে এসেছেন, দোয়া করেছে, তাদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।’

তিনি বলেন, ‘আমার অনুপস্থিতে দলের নেতাকর্মীরা যে টিম ওয়ার্ক করে দলের কাজ করেছেন। দলকে এগিয়ে নিতে তারা সবাই একযোগে কাজ করেছেন, দলকে এগিয়ে নিয়েছেন- এটা আমাকে মুগ্ধ করেছে।’

এদিকে দলের নেতা সুস্থ হয়ে ফিরে আসায় তাকে অভ্যর্থনা জানান দলের কেন্দ্রীয় কমিটির নেত্রীবৃন্দ ও আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। ওবায়দুল কাদের এ সময় বিমানবন্দরে নেতাকর্মীদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।

বিমানবন্দরের আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, আব্দুর রহমান, জাহাঙ্গীর কবির নানক; সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল, আফম বাহাউদ্দিন নাছিম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী; বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, বিজ্ঞান সম্পাদক আব্দুস সবুর, সদস্য মারুফা আক্তার পপিসহ আরও অনেকে।

ad