প্রকাশিত: ০৪/১০/২০১৬ ৭:৩০ এএম

image-645প্রিয় প্রিয় তারকাকে একনজর দেখতে চট্টগ্রামের রাওজান থানার বড়ুয়া পাড়ায় হাজার হাজার মানুষের উপচেপড়া ভীড়। বিগত বেশ কয়েকদিন সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত এ দৃশ্য লক্ষ্য করা যাচ্ছে। তাদের মধ্যে রয়েছে শিশু, যুবক এবং বৃদ্ধরাও।

শতবর্ষী নারী অনুপমা বড়ুয়া পাড়ার এসেছিলেন শুটিং দেখতে। তাকে দেখে অভিনেতা জাহিদ হাসান ছুটে যান তার কাছে। জাহিদ হাসান তার পা ছুঁয়ে সালাম করেন। সেই নারী মুগ্ধ হয়ে তাকিয়ে থাকেন জাহিদ হাসানের দিকে। শুটিং দেখতে আসা উপচেপড়া দর্শক জাহিদ হাসানের এমন ব্যবহারে বিস্ময় প্রকাশ করেন।

এদিকে তৌকীর আহমেদ বারবার তার সহকারীকে বলেন ভীড় কমাতে হবে, তা না হলে শুটিং করা সম্ভব না। কিছুক্ষন পর সবাইকে একটু দূরে সরিয়ে আবারো শুটিং শুরু হয়। আর এভাবেই চলছে হালদার পাড়ে ‘হালদা’সিনেমার শুটিং।

বড়ুয়া পাড়ার মানুষজন তৌকীর আহমেদ, জাহিদ হাসান, মোশাররফ করিম ও তিশাকে দেখতেই সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত একই স্থানে দাঁড়িয়ে থাকেন।

এখানে তৌকীর আহমেদ নির্মাণ করছেন তার নতুন চলচ্চিত্র ‘হালদা’। আজাদ বুলবুলের মূল গল্প অবলম্বনে কিছুটা পরিবর্তন পরিবর্ধন করে তৌকীর আহমেদ চলচ্চিত্রটির চিত্রনাট্য করেছেন। এতে অভিনয় করছেন জাহিদ হাসান, মোশাররফ করিম, ফজলুর রহমান বাবু, নুসরাত ইমেরাজ তিশা, মোমেনা চৌধুরী, শাহেদ আলী।

গত ২৬ সেপ্টেম্বর থেকেই তৌকীর আহমেদ এখানে শুটিং শুরু করেন। চলবে চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত।

এ প্রসঙ্গে তৌকীর আহমেদ বলেন, ‘যে বিষয়টিকে উপজীব্য করে সিনেমাটি নির্মাণ করছি তা সত্যিই খুব কষ্টসাধ্য ব্যাপার। নদীতে শুটিং করা অনেক কঠিন। তবে আবহাওয়া অনুকুলে ছিলো বিধায় কষ্ট হলেও সঠিকভাবেই কাজ করতে পারছি। শিল্পীরাও যথেষ্ট আন্তরিকতা নিয়ে কাজ করছেন। ‘অজ্ঞাতনামা’র পর হালদা আমার জন্য নতুন এক চ্যালেঞ্জ।’

ছবিতে নাদের চরিত্রে জাহিদ হাসান, বদি চরিত্রে করিম এবং হাসু চরিত্রে অভিনয় করছেন তিশা।

জাহিদ হাসান বলেন, ‘তৌকীর ভাই নির্মাতা হিসেবে অসাধারণ, এটা আসলে বলার অপেক্ষা রাখে না। যেহেতু চলচ্চিত্র অনেক বড় ইউনিটের ব্যাপার। তাই যথেষ্ট ঠাণ্ডা মাথায় তৌকীর ভাই কাজটি করছেন। আমার চরিত্রটিও বেশ চ্যালেঞ্জিং। কাজটি করে আমি তৃপ্ত।’

মোশাররফ করিম বলেন, ‘তৌকীর ভাই তার প্রতিটি কাজই নতুন করে নতুন আঙ্গিকে করে থাকেন। প্রত্যেকটি কাজই বেশ গুছানো হয়ে থাকে এবং তিনি কাজটি করার জন্য যথেষ্ট তৈরী থাকেন। যে কারণে তার কাজ অনেক ভালো হয়ে থাকে। খুব পরিশ্রম করে কাজ করেন তিনি এবং একজন পারফেকসনিষ্ট পরিচালক তিনি।’

তিশা বলেন, ‘হালদা একটি ভালো গল্প, গল্পটি একজন গুণী নির্মাতার হাতে নির্মিত হচ্ছে এবং সেই সাথে এতে গুনী শিল্পীরা অভিনয় করছেন। তাতে বুঝাই যায় যে কাজটি কতোটা ভালো হবে। তাই আমি খুব আশাবাদী কাজটি নিয়ে।’

নির্মাতা তৌকরী আহমেদ আরো উল্লেখ করে বলেন, নদীর পাড়ে হাজার হাজার মানুষের ভীড় উপেক্ষা করে শুটিং করা অনেক কষ্টের বিষয়। কিন্তু তারপরও এলাকাবাসীর সহযোগিতা নিয়ে তিনি ‘হালদা’র কাজ বেশ ভালোভাবেই শেষ করছেন।

উল্লেখ্য, মোশাররফ করিম এর আগে তৌকীর আহমেদের নির্দেশনায় চলচ্চিত্রে অভিনয় করলেও এবারই প্রথম জাহিদ হাসান ও তিশা চলচ্চিত্রে জুটিবদ্ধ হয়ে অভিনয় করছেন।

পাঠকের মতামত

‘তোর প্রেমেতে’ গানের মডেল হলেন উখিয়ার জয়নাল জ্যাক

মুক্তি পেয়েছে নতুন গানচিত্র ‘তোর প্রেমেতে’। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান লায়নিক মিউজিকের ব্যানারে মুক্তিপ্রাপ্ত গানটিতে কন্ঠ দিয়েছেন ...