উখিয়া নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২/১২/২০২৩ ৯:১৬ এএম

বয়স মাত্র ২৩ বছর। এর মধ্যে পেয়েছেন সরকারি চাকরি। এমন ছেলেকে হাতছাড়া করতে চায়নি এক কনের বাবা। তাইতো নিজের মেয়ের সঙ্গে সরকারি চাকরিজীবী যুবকের বিয়ে দিতে যা কাণ্ড ঘটিয়েছেন-তাতে রীতিমত শোরগোল পড়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ভারতের বিহারের রেপুরা জেলায় এ ঘটনার সূত্রপাত। গত বুধবার ক্লাসে পড়াচ্ছিলেন গৌতম কুমার নামে এক শিক্ষক। সেই সময়ে ক্লাসরুমে ঢুকে পড়েন একদল ব্যক্তি। বন্দুক ঠেকিয়ে স্কুল থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় গৌতমকে। এরপর সোজা পাঠিয়ে দেওয়া হয় রাজেশ রাইয়ের বাড়িতে।

খবরে বলা হয়, গৌতমের দিকে বন্দুক তাক করে জানিয়ে দেওয়া হয়, বিয়ে করতেই হবে। নয়তো এর পরিণতি ভাল হবে না। প্রাণের ভয়ে রাজেশের মেয়ে চাঁদনিকে বিয়ে করতে বাধ্য হন গৌতম।

এদিকে স্কুল থেকে গৌতমকে অপহরণের পরই থানায় খবর দেন স্কুলটির প্রধান শিক্ষক। দীর্ঘক্ষণ ছেলের খবর না পেয়ে খোঁজখবর শুরু করেন গৌতমের পরিবারের সদস্যরাও। শেষ পর্যন্ত গৌতমের ফোন ট্র্যাক করে তার খোঁজ মেলে। পুলিশ গৌতমকে উদ্ধার করেন। তবে ততক্ষণে বিয়ের সমস্ত নিয়ম সম্পন্ন হয়েছে।

এ ঘটনার প্রতিবাদে রাস্তায় অবরোধ করেন গৌতমের পরিবারের সদস্যরা। এ ঘটনায় পুলিশ পাঁচজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে। পুরো এ ঘটনার তদন্ত চলছে বলে খবরে বলা হয়েছে।

পাঠকের মতামত

ইনডিপেনডেন্ট টিভির প্রতিবেদন মিয়ানমারে ঘাঁটি গাড়তে পারে মার্কিন বাহিনী

সহযোগিতা বা গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার অজুহাতে মিয়ানমারে ঘাঁটি গাড়তে পারে মার্কিন বাহিনী। চলমান উত্তেজনায় এমন আশঙ্কা ...