উখিয়া নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪/১২/২০২২ ১০:২০ এএম

কক্সবাজার শেখ কামাল আর্ন্তজাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম মাঠের জনসভায় স্মরণকালের গণজমায়েত দিতে ব্যাপক প্রস্তুতি নিচ্ছে আওয়ামী লীগ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষে সাজ সাজ রব পর্যটন শহরের প্রতিটি এলাকায়। ইতোমধ্যে নেতাকর্মীদের ব্যানার-ফেস্টুন ও পোস্টারে ছেয়ে গেছে জনসভাস্থলের আশপাশসহ শহরের প্রধান সড়ক থেকে শুরু করে অলি-গলি।

আগামী ৭ ডিসেম্বর কক্সবাজার আসছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রায় সাড়ে ৫ বছর পর পর্যটন জেলা কক্সবাজারে আসছেন প্রধানমন্ত্রী। এ উপলক্ষে সমাবেশকে জনসমুদ্রে পরিণত করতে চায় কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগ।

৭ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকালে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের ইনানী-পাটোয়ারটেক সৈকতে অনুষ্ঠিতব্য তিনদিনব্যাপী আন্তর্জাতিক নৌশক্তি প্রদর্শন মহড়ার উদ্বোধন করবেন। বাংলাদেশ নৌবাহিনী আয়োজিত নৌশক্তি মহড়ায় যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ভারত, চীনসহ ৩৬টির বেশি দেশ অংশগ্রহণের কথা রয়েছে।

ওইদিন বেলা আড়াইটায় সৈকতের লাবনী পয়েন্টের কাছে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আওয়ামী লীগের দলীয় জনসভায় ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী।

জানা গেছে, কক্সবাজার শহর ও প্রত্যেক উপজেলা ছাড়াও আশপাশের উপজেলা থেকে সমাবেশে যোগ দেবেন নেতাকর্মী ও সমর্থকরা। সব মিলিয়ে শেখ কামাল আর্ন্তজাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের জনসভাস্থলের মাঠ কাণায় কাণায় পূর্ণ হয়ে আশপাশে সড়কও ছাড়িয়ে যাবে বলে ধারণা করছেন জেলা আওয়ামী লীগ নেতারা।

সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে, প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে কক্সবাজার বিমানবন্দর থেকে শহরের কলাতলীর মোড় পর্যন্ত পাঁচ-ছয় কিলোমিটার সড়কে তোরণ নির্মাণের ধুম পড়েছে। ইতোমধ্যে অর্ধশতাধিক তোরণ তৈরি হয়েছে। শেখ কামাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামের ভেতরে জনসভায় বিশাল মঞ্চ তৈরির কাজও চলছে।

জনসভা সফল করতে মাঠে নেমেছেন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। প্রধানমন্ত্রীর সফর নিরাপদ করতে মাঠে নেমেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

এ বিষয়ে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রনজিত দাশ বলেন, ‘আওয়ামী লীগের এ সমাবেশ জনসমুদ্রে পরিণত হবে। কক্সবাজারের মানুষ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দেখার জন্য উন্মুখ হয়ে আছে। সমাবেশে মানুষের উপস্থিতিই প্রমাণ দেবে, প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কক্সবাজারবাসীর ভালবাসা।’

তিনি আরও বলেন, ‘৭ ডিসেম্বরের দলীয় জনসভা থেকেও প্রধানমন্ত্রী কক্সবাজারের উন্নয়নে নতুন কিছু ঘোষণা দিতে পারেন। শেখ হাসিনা কক্সবাজারকে যা দিয়েছেন, অতীতে কোনো সরকারের পক্ষে তা সম্ভব হয়নি।’

কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান বলেন, ‘জনসভা মাঠ সকালেই পূর্ণ হয়ে যাবে। বিশেষ করে ১০-১১টার মধ্যে মাঠ পরিপূর্ণ হতে পারে। তবে মাঠের বাইরেও থাকবে ৫ গুণ বেশি মানুষ। প্রধানমন্ত্রীর কক্সবাজারের ৭ ডিসেম্বরের মহাসমাবেশ হবে স্মরণকালের সেরা সমাবেশ।’

এর আগে ২০১৭ সালের ২২ সেপ্টেম্বর উখিয়ার আশ্রয়শিবিরে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের দেখতে এসে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের দলীয় জনসভায় ভাষণ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

পাঠকের মতামত

রাষ্ট্রপতি হতে চান জগদীশ, কয়েকদিন ধরে ঘুরলেও মনোনয়নপত্র কিনতে পারেননি

দেশের ২২তম রাষ্ট্রপতি হওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করে নির্বাচন কমিশনে ঘুরছেন কক্সবাজারের বাসিন্দা জগদীশ বড়ুয়া পার্থ। ...

সেনাবহরে যুক্ত টাইগার মিসাইল, আঘাত হানবে ১২০ কিমি অঞ্চলে

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর আধুনিকায়নের ধারায় এবার সেনাবহরে নতুন সংযোজিত হয়েছে তুরস্কের তৈরি ‘টাইগার মিসাইল সিস্টেম’। প্রথমবারের ...