প্রকাশিত: ১৫/০৪/২০১৭ ৬:৫৭ পিএম

ফরিদুল মোস্তফা খান, কক্সবাজার ::
বর্ষবরণের আনন্দে মাতোয়ারা পর্যটকরা নিজের জীবনকে বিদায় দেয়ার উপক্রম অবস্থায় চলে যাচ্ছেন কক্সবাজার সৈকতে। সাগরে গোসলে নিদিষ্টি কিছু নিয়ম থাকলেও তা মানছেন না কেউ।
ফলে সৈকতে দীর্ঘ হচ্ছে মৃত্যুর মিছিল। বাড়ছে দূর্ঘটনা। লাইফগার্ড কর্মীদের দাবী, এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট পর্যটকদের আকুতি মিনতি করে বলা হলেও তারাতো শুনেন না, উল্টো বকাঝকা করেন । এ অবস্থায় নির্দিষ্ট জোনে গোসল এবং জোয়ার ভাটার নির্দেশিকা মেনে পর্যটকদের গোসলসহ সব ধরনের কাজে সচেতন থাকার পরামর্শ দিয়েছেন ট্যুরিস্ট পুলিশ ।
পহেলা বৈশাখ ও তার পরের দিন সুগন্ধা পয়েন্টে দেখা গেছে, দিনভর সেখানে বেশকিছু পর্যটক সাগরে গোসল করছেন। এরমধ্যে পুরুষ পর্যটকের পাশাপাশি নারী -শিশুও রয়েছে। এসময় বেশ কয়েকজন স্থানিয় লোকজন বলছেন, ভর সন্ধ্যায় সাগরে গোসল করাটা খুবই ঝুকিপূর্ণ, এ বিষয়ে তাদের সতর্ক করা দরকার। পাশে থাকা এক লাইফগার্ড কমী বলেন, আমি বেশ কয়েকবার উনাদের মানা করেছি, কিন্তু উনারা কথা শুনছেন না। এখন ভাটার টানও শুরু হয়েছে, তার উপর সন্ধ্যা হয়ে আসছে, আর কিছুক্ষণ পরেই অন্ধকার হয়ে আসবে। তবুও উনারা সাগর থেকে উঠছেন না। লাইফগার্ড কর্মী আরো বলেন, কিছুকিছু পর্যটকদের মানা করেও রাখা যায় না। এদিকে আরেক বীচ কর্মী নাছির উদ্দিন বলেন ,পর্যটকরা সাগরে গোসল করার নিয়ম মানছে না। উনারা যদি নিয়ম মেনে সাগরে গোসল করে তাহলে নিজেরাই বিপদ থেকে রক্ষা পেত। আমরা ছাড়া ট্যুরিস্ট পুলিশ সার্বক্ষণিক মাইর্কিং করে এবং টহল দিয়ে তাদের সচেতন করছে তবুও অনেকে নিয়ম না মেনে গোসল করতে নেমে পড়ে। আমরা বলি গভীর পানিতে না যেতে উনারা শখের বসে গভীর পানিতে গিয়ে পড়ে অনেক সময় বড় ঢেউ আসলে সেটা আর সামাল দিতে পারে না। তখন বিপদ ঘটে যায় ।
কয়েকজন ছাতা ব্যবসায়ি বলেন, পর্যটকদের যারা যে হোটেলে থাকে তারা সে হোটেলের কাছের বীচেই গোসল করছে। যাতে তারা সহজে হোটেলে আসা যাওয়া করতে পারে, তবে সেটা উচিত নয়। যেমন কলাতলী বীচ দিয়ে প্রতিদিন অসংখ্য পর্যটক গোসল করে আমরা নিজেরাই তাদের সতর্ক করে বলি, গোসল করতে হলে মূল বীচে যেতে, কিন্তু উনারা শুনেনা।

পাঠকের মতামত

উখিয়ার বন কর্মকর্তা সাজ্জাদুজ্জামান হত্যা: পালিয়েও শেষ রক্ষা হলোনা ঘাতক বাপ্পীর!

উখিয়া রেঞ্জের দোছড়ি বিট কর্মকর্তা মো. সাজ্জাদুজ্জামান সজলকে সরকারি দায়িত্ব পালনকালে গত ৩১মার্চ রাত আনুমানিক ...

মুখোমুখি সংঘর্ষ থেকে রক্ষা পেল কক্সবাজার এক্সপ্রেস ও পর্যটক এক্সপ্রেস

দুই ট্রেনচালকের সতর্কতায় বড় ধরনের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছে কক্সবাজার এক্সপ্রেস ও পর্যটক এক্সপ্রেস। স্টেশনমাস্টার ...

মিয়ানমারে বন্দি ১৪ বাংলাদেশি জেলে, ভিক্ষা করে চলছে মুবিনার সংসার!

কক্সবাজারের টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়নের শাহপরীর দ্বীপের জালিয়াপাড়া। নাফ নদী সংলগ্ন বেড়িবাঁধ এলাকার বাইরে অবস্থিত গ্রামটিতে ...

উখিয়া থেকে অপহৃত স্কুলছাত্রী চট্টগ্রামে উদ্ধার, অপহরণকারী গ্রেপ্তার

কক্সবাজারের উখিয়ায় অপহৃত স্কুলছাত্রীকে চট্টগ্রাম থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এসময় অপহরণকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়। গত ...