প্রকাশিত: ২৭/১০/২০১৬ ৯:২১ পিএম

আতিকুর রহমান মানিক, কক্সবাজার::

কক্সবাজারে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে বরফকল ও ফিশিংবোটমালিক  থেকে জরিমানা আদায় করা হয়েছে। এসময় জব্দ করা হয়েছে তিন লক্ষ মিটার নিষিদ্ধ চরজাল। জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে মৎস্য অধিদপ্তর, কোস্টগার্ড ও আনসার ফোর্স ২৭ অক্টোবর (বৃহস্পতিবার) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বাঁকখালী নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে এ ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালিত হয়।
সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা (সদর) ডঃ মঈন উদ্দীন আহমদ জানান, মা ইলিশ রক্ষা কার্যক্রম উপলক্ষে গৃহীত চলমান কর্মসূচীর আওতায় উপরোক্ত ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার সময় খুরুস্কুল ব্রীজ সংলগ্ন মাঝের ঘাট এলাকায় কয়েকটি বরফকলে তল্লাশী করা হয়। এসময় জনৈক সবুর সওদাগরের মালিকানাধীন জোনাকী বরফকল থেকে ফিশিংবোটে বরফ লোড করা অবস্হায় হাতেনাতে ১টি বোট আটক করা হয়। নিষিদ্ধকালীন সময়ে বরফ উৎপাদন ও বিক্রির অপরাধে জোনাকী বরফকল কর্তৃপক্ষকে ৬ হাজার টাকা ও আইন অমান্য করে সাগরে মাছ আহরণে যাওয়ার প্রস্তুতির অপরাধে বোট মালিককে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। জোনাকী বরফকল সংলগ্ন জেটির আশপাশে তল্লাশী চালিয়ে বরফভর্তি আরো ৭টি বোটের বরফ নষ্ট করে দেয়া হয়। এরপর বাঁকখালী নদীর খুরুস্কুল ব্রীজপয়েন্ট থেকে নুনিয়াছড়া ফিশারীঘাট এলাকা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে আনুমানিক তিন লক্ষ মিটার অবৈধ চরজাল জব্দ করেন ভ্রাম্যমান আদালত। জব্দকৃত জাল বিকালে ফিশারীঘাটের বিপরীতে বাঁকখালীর চরে পুড়িয়ে নষ্ট করা হয়। জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট রুবাইয়া আফরোজ ভ্রাম্যমান আদালতে নেতৃত্ব দেন। সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা (সদর) ডঃ মঈন উদ্দীন আহমদ ও মৎস্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, কোস্টগার্ড কক্সবাজার স্টেশনের কন্টিনজেন্ট কমান্ডার মোঃ জাহিদুল ইসলামের নেতৃত্বাধীন কোস্টগার্ড ফোর্স ও কক্সসবাজারস্হ ৯ অানসার ব্যাটালিয়ন ফোর্স ভ্রাম্যমান আদালতকে সহায়তা করেন। জেলা মৎস্য কর্মকর্তা অমিতোষ সেন জানান, সরকারগৃহীত মা ইলিশ রক্ষা কার্যক্রম সফল করতে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

পাঠকের মতামত

ইনানীতে হচ্ছে ফায়ার সার্ভিসের পূর্ণাঙ্গ প্রশিক্ষণ কেন্দ্র

অবশেষে কক্সবাজারে হচ্ছে ফায়ার সার্ভিসের পূর্ণাঙ্গ আঞ্চলিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র এবং অত্যাধুনিক ফায়ার স্টেশন। অর্থনৈতিক এবং ...