প্রকাশিত: ২০/১০/২০১৬ ৯:১২ পিএম

20161020_151602শাহিদ মোস্তফা শাহিদ, কক্সবাজার সদর::

কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁও বাসস্টেশনের বনফুল কোম্পানীর নামে দীর্ঘদিন প্রতারণামূলক ব্যবসা করে আসছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগে জানা যায়, ঈদগাঁও বাসস্টেশনের আরফাত শপিং কমপ্লেক্সের নিচতলায় ডুলাহাজারা এলাকার আয়ুব নামের এক ব্যক্তি দীর্ঘদিন ধরে বনফুল কোম্পানীর এজেন্ট নিয়ে ব্যবসা করে আসছিল। মাঝপথে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে মনোমালিন্য হওয়ায় উক্ত আয়ুবকে তাদের কোন ধরণের মালামাল দিচ্ছে না। সে সুবাদে গত ৩ মাস ধরে বিভিন্ন কোম্পানীর মালামাল মজুদ করে রেখে বনফুল কোম্পানীর মালামাল বলে প্রচার ও বিক্রি করে আসছে। এছাড়া স্থানীয়রা সরল বিশ^াসে বনফুল কোম্পানীর মালামাল ক্রয় করতে গিয়ে ঠকছে বলে জানা গেছে। অভিযোগ সুত্রে আরো জানা যায়, উক্ত বনফুল কোম্পানীর নামে অন্যান্য কোম্পানীর মালামাল খেয়ে অনেকেই রোগাক্রান্ত হচ্ছে বলে ভূক্তভোগীরা উক্ত কোম্পানীর উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেও ফলপ্রসু কোন সমাধান পাচ্ছে না। গতকাল বনফুল কোম্পানীর উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে উক্ত বনফুলের সাইনবোর্ড নামিয়ে ফেলার তাগাদা দিলেও তা মানছে না ম্যানেজার আয়ুব। এ ব্যাপারে বাসস্টেশনের ব্যবসায়ী আবুল হোসেন সওদাগর, কলেজ ছাত্র ইমরান, স্কুল ছাত্র সৈকত পালসহ অনেকেই জানান, ঈদগাঁওস্থ ফাস্টফুড ব্যবসায়ী বনফুলের নাস্তা খেতে গিয়ে বিভিন্ন ধরণের অপরিস্কার ও অপরিচ্ছন্নতা দেখতে পায়। তারা দ্রুত এ প্রতারণামূলক ব্যবসা বন্ধের দাবী জানিয়ে আসছে। এ প্রসঙ্গে কক্সবাজারের দায়িত্বরত বনফুলের কর্মকর্তা দিলদার আহমদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, কয়েকদিন ধরে তাকে ব্যানার, পোস্টার, সাইনবোর্ডসহ সমস্ত প্রচার পত্র নামিয়ে ফেলার নির্দেশ দেওয়া হয়। তারপরও অমান্য করলে কর্তৃপক্ষ মামলা করতে বাধ্য হবে। এ ব্যাপারে ঈদগাঁওস্থ ম্যানেজার আয়ুবের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনিও স্বীকার করে বলেন, উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে বকেয়া নিয়ে কিছু ঝামেলা এড়াতে হয়েছিল। পরিশোধ করে পুনরায় ব্যবসা করবেন বলে জানান।

পাঠকের মতামত

ইনানীতে হচ্ছে ফায়ার সার্ভিসের পূর্ণাঙ্গ প্রশিক্ষণ কেন্দ্র

অবশেষে কক্সবাজারে হচ্ছে ফায়ার সার্ভিসের পূর্ণাঙ্গ আঞ্চলিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র এবং অত্যাধুনিক ফায়ার স্টেশন। অর্থনৈতিক এবং ...