ডেস্ক নিউজ
প্রকাশিত: ১১/০৪/২০২৩ ৪:১০ এএম

কক্সবাজারের রোহিঙ্গা আশ্রয়শিবিরে সক্রিয় মিয়ানমারের সশস্ত্র বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি (আরসা) ও রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের অস্ত্র জোগান দেওয়ার অভিযোগে নাসির উদ্দিন (৩০) নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে।

রোববার (৯ এপ্রিল) রাত সাড়ে ১২টার দিকে চকরিয়া উপজেলার ইলিশিয়া এলাকার দুর্গম চিংড়ি ঘেরে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে।

এ সময় দুটি কার্তুজ ও দুটি এলজি বন্দুক উদ্ধার করা হয়।
র‌্যাবের দাবি, আটক নাসির উদ্দিন বিভিন্ন জায়গা থেকে অস্ত্র সংগ্রহ করে আরসা ও রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের জোগান দেয়।

নাসির উদ্দিন চকরিয়া উপজেলার মানিকপুর-সুরাজপুর ইউনিয়নের সুরাজপুর গ্রামের বাসিন্দা। তাকে যে ঘের থেকে আটক করা হয়েছে সেই ঘেরের মালিক মাতামুহুরী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার একই অভিযোগে চকরিয়া থেকে অস্ত্রসহ তিনজন এবং কক্সবাজার শহরের বাহারছড়া থেকে তিনটি অস্ত্রসহ রোহিঙ্গা যুবককে আটক করেছিল র‍্যাব।

কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (আইন ও গণমাধ্যম) এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আবু সালাম চৌধুরী আজ সোমবার বিকেলেএক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আবু সালাম চৌধুরী জানান, রোহিঙ্গা শিবিরে সক্রিয় সশস্ত্র গোষ্ঠী আরসা ও রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা গোপনে কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন এলাকা হতে অস্ত্র সংগ্রহ করে আসছে। এই অস্ত্র দিয়ে রোহিঙ্গা ক্যাম্পসহ কক্সবাজারের বিভিন্ন এলাকায় অপহরণ, হত্যা ও নানা অপরাধ কর্মকাণ্ডে জড়িত রয়েছে।

এ তথ্যের ভিত্তিতে চকরিয়ার ইলিশিয়া চিংড়ি ঘেরে অভিযান চালিয়ে দুটি তাজা কার্তুজ ও দুটি এলজি বন্দুকসহ নাসির উদ্দিনকে আটক করা হয়। ওই চিংড়ি ঘেরের চারপাশে সিসি ক্যামেরা বসিয়ে এবং সুউচ্চ ওয়াচ টাওয়ার ব্যবহার করে নিরাপদে অস্ত্র ব্যবসা পরিচালিত করা হচ্ছে- যা অভিযানকালে পরিলক্ষিত হওয়া গেছে বলে জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আবু সালাম চৌধুরী।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক নাসির উদ্দিন দীর্ঘদিন ধরে মহেশখালীসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে অবৈধ অস্ত্র সংগ্রহ করে বিক্রি করছে স্বীকার করেছে। তাকে চকরিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

যোগাযোগ করা হলে মাতামুহুরি সাংগঠনিক থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পশ্চিম বড় ভেওলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলা বলেন, তার ঘেরে কোনো অস্ত্র ছিল না। ঘেরটি সিসি ক্যামেরা ধারা পরিচালিত। ঘেরের সিসি ক্যামেরার হার্ডডিক্স নিয়ে গেছে র‌্যাব। হার্ডডিক্স চেক করলেই বিষয়টি ধরা পড়বে। তিনি দাবি করেন, নাসির একজন ভালো ও শান্তশিষ্ট ছেলে। সে কোনোভাবে অস্ত্র ব্যবসায়ী হতে পারে না

পাঠকের মতামত

উখিয়ার পূর্ব দরগাহ বিল দক্ষিণপাড়া ইবতেদায়ী মাদ্রাসার নতুন ভবন নির্মাণ কাজের শুভ উদ্বোধন

উখিয়ার রাজাপালং ইউনিয়নের পুর্ব দরগা বিল দক্ষিণপাড়া স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসার ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে নতুন ...