ad

রোহিঙ্গা ইস্যুতে সহযোগিতার আশ্বাস দ. কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রীর

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন সফররত দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী লি নক-ইয়ন।

রোববার (১৪ জুলাই) বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাতের সময় তিনি এ আশ্বাস দেন।

পরে দুদেশের মধ্যে একটি নথি ও দুটি সমঝোতা স্মারক সই হয়। কোরিয়া দুই দেশের বৈঠকে কোটা ও শুল্কমুক্ত বাণিজ্য সুবিধা দিতে প্রস্তুত বলে জানিয়েছে।

বাংলাদেশ সফরের দ্বিতীয় দিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আনুষ্ঠানিক বৈঠক করেন কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী লি নক-ইয়ন। বিকেলে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে পৌঁছালে তাকে উষ্ম অভ্যর্থনা জানান শেখ হাসিনা।

এরপর দুই প্রধানমন্ত্রীর আনুষ্ঠানিক সাক্ষাত অনুষ্ঠিত হয়। সাক্ষাতে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রার ভূয়সী প্রশংসা করে উন্নয়ন সহযোগী হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী। রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে বাংলাদেশের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতিও দেন তিনি।

এ সময় বাংলাদেশ-কোরিয়া সম্পর্ক এগিয়ে নেওয়ার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশে বিনিয়োগ বাড়াতে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বানও জানান তিনি।

পরে আনুষ্ঠানিক বৈঠকে বসে দুদেশের প্রতিনিধিরা। বাংলাদেশ-কোরিয়ার মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বাড়ানোসহ বাণিজ্যিক সম্পর্ক সম্প্রসারণে একমত হয় দুদেশ৷ বৈঠক শেষে শেখ হাসিনা ও লি নক-ইয়নের উপস্থিতিতে দুদেশের মধ্যে পররাষ্ট্র বিষয়ক সহায়তা এবং বিনিয়োগ ও বাণিজ্য সম্প্রসারণের লক্ষ্যে দুটি সমঝোতা স্মারক এবং সংস্কৃতি বিনিময়ের লক্ষ্যে একটি নথি সই হয়।

পরে সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব জানান, শুল্ক ও কোটামুক্ত বাণিজ্য সুবিধা দিতে প্রস্তুত দক্ষিণ কোরিয়ান সরকার।

বিদ্যুৎ জ্বালানি, শিক্ষা, তথ্যসহ বিভিন্ন খাতে ১ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগে আগ্রহ দেখিয়েছে বলেও জানান তিনি।

ad