ad

৭১ শিক্ষার্থী নিয়ে যাত্রা করলো কক্সবাজার ডিসি কলেজ

৭১ জন শিক্ষার্থী নিয়ে অবশেষে কক্সবাজারে যাত্রা শুরু করলো নব প্রতিষ্ঠিত কক্সবাজার ডিসি কলেজ।
এ উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন বলেছেন, সমস্ত রুপে গুনে কক্সবাজার বিশে^র অন্যতম আদর্শ পর্যটন নগরী হলেও শিক্ষায় অনেকটা পিছিয়ে আছে এই জেলা। সেই বদনাম গুছাতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করতে হবে। তারিধারাবাহিকতায় নব প্রতিষ্টিত কক্সবাজার ডিসি কলেজ জেলার শিক্ষা ক্ষেত্রে বড় অবদান রাখবে সেটা আমি বিশ^াস করি এবং ডিসি কলেজের ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীরা শুধু শিক্ষা নয় কলেজে সব ধরনের সেবা পেয়ে থাকবে। এখানে স্বাস্থ্য সেবা থেকে শুরু করে পরিবহণ সেবা, বিতর্ক প্রতিযোগিতার প্রশিক্ষণ, বিজ্ঞানের সব ধরনের আধুনিক উপকরণের ব্যবহার করা, মানবিক গুনাবলি শিক্ষা, ধর্মীয় এবং নৈতিক শিক্ষা সব কিছু এখানে থাকবে। মোট কথা ডিসি কলেজের শিক্ষার্থীরা রুপে গুনে হবে অনন্য। তিনি গতকাল দুপুর ১ টায় কক্সবাজার ডিসি কলেজের নবীণ বরণ অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য কালে এসব কথা বলেন।
এ সময় জেলা প্রশাসক আরো বলেন, এই কলেজে সর্বোচ্চ মানের শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া এখানে শিক্ষার্থীদের জন্য সব ধরনের উপকরণ এবং বই খাতা বিনামুল্যে দেওয়ার চেস্টা করা হবে বলেও জানান তিনি।শেষে শিক্ষার্থীদের জিপিএ-৫ পাওয়ার পাশাপাশি ভাল মানুষ হওয়ার পরামর্শ দেন।
কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের অস্থায়ী ক্যাম্পাসে কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ এবং অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট শাহজাহান আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্টিত সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শিক্ষা ও আইটিসি আমিন আল পারভেজ,বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আদিবুল ইসলাম। বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এড. সিরাজুল মোস্তফা,সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান,জেলার বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক সোমেশ্বর চক্রবর্তী, কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু তাহের, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোঃ শাহজাহান, সিনিয়র সাংবাদিক তোফায়েল আহামদ, জেলা জাসদের সভাপতি নঈমুল হক চৌধুরী টুটুল, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান কায়সারুল হক জুয়েল, সাংবাদিক ফজলুল কাদের চৌধুরী, প্রকৌশলী কানন পাল, শিক্ষার্থীর পক্ষে উম্মে সালমা প্রমুখ। পরে কক্সবাজার ডিসি কলেজের প্রথম ব্যাচে ভর্তি হওয়া ৭১ জন শিক্ষার্থীর মাঝে বই বিতরণ করা হয়।
এদিকে ডিসি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ এডিএম শাহজাহান আলী বলেন,মহান স্বাধীনতার বছর ১৯৭১ সালের সাথে মিল রেখে আমরা ৭১ জন শিক্ষার্থী নিয়ে যাত্রা শুরু করবো। আশা করছি এক সময় কক্সবাজার ডিসি কলেজ এই অঞ্চলের আলোকবর্তিকা হয়ে থাকবে।

ad