৩ সপ্তাহে রোহিঙ্গা ফেরত: সু চি

নিউজ ডেস্ক::
বাংলাদেশের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক হওয়ার তিন সপ্তাহের মধ্যে রোহিঙ্গাদের নিরাপদে দেশে ফিরিয়ে নেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি।

সোমবার ফিলিপাইনের রাজধানী ম্যানিলায় দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার আঞ্চলিক জোট আসিয়ানের ৩১তম সম্মেলনের এক প্লেনারি অধিবেশনে এই প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। খবর ম্যানিলা বুলেটিন ও সিএনএন ফিলিপাইনের

রুদ্ধদ্বার এই অধিবেশন শেষে পালিয়ে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসনে সু চির দেওয়া ওই প্রতিশ্রুতির কথা জানান ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র হ্যারি রোক জুনিয়র।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘মানবিক সহায়তাকে অভিনন্দন ও বাংলাদেশের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের তিন সপ্তাহের মধ্যে অভ্যন্তরীণ বাস্তুচ্যুত ব্যক্তিদের (রোহিঙ্গাদের) প্রত্যাবাসন করা হবে।’

সু চি বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের নিয়ে এসময় ‘উদ্বেগ’ প্রকাশ করেন বলেও জানান ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র।

কূটনৈতিক সূত্রগুলো জানায়, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া ও সিঙ্গাপুরের পক্ষ থেকে অধিবেশনে রোহিঙ্গা ইস্যুটি উত্থাপন করা হয়। এরপর মিয়ানমারের তরফে বলা হয়, আনান কমিশনের প্রস্তাব তারা মেনে চলছে। তবে সন্ত্রাসবাদ দমন ও রাখাইনে শান্তি ফিরিয়ে আনতেই সেনা অভিযান চালনো হয় বলেও জানায় মিয়ানমার।

উল্লেখ্য, বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ রাখাইনে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর দমন অভিযান শুরুর পর গত ২৫ অাগস্ট থেকে অন্তত ছয় লাখ রোহিঙ্গা মুসলমান পালিয়ে বাংলাদেশে এসেছে; যা এখনও অব্যাহত রয়েছে। রোহিঙ্গাদের ওপর এই সহিংসতাকে ‘জাতিগত নির্মূল অভিযান’ হিসেবে চিহ্নিত করে এর সমালোচনা করে আসছে জাতিসংঘ।