হাটহাজারী মাদ্রাসায় নতুন দায়িত্বে বাবুনগরী

হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীকে হাটহাজারী মাদ্রাসার শাইখুল হাদিস এবং নাজিমে তালিমাত (শিক্ষা পরিচালক) করা হয়েছে। শনিবার রাতে মাদ্রাসার মজলিসে শূরার বৈঠকে তাকে এই নতুন দায়িত্ব দেয়া হয়। এছাড়া মাদ্রাসা পরিচালনার জন্য তিন সদস্যের একটি প্যানেল গঠন করা হয়।

সদ্য মারা যাওয়া আল্লামা শফীর ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত বাবুনগরীর সঙ্গে এক পর্যায়ে দূরত্ব সৃষ্টি হয় আল্লামা শফীর ছেলে আনাস মাদানী ও তার অনুসারীদের। গত ১৭ জুন জুনায়েদ বাবুনগরীকে মাদ্রাসার সহকারী পরিচালক পদ থেকে সরিয়ে দিয়ে তাকে সাধারণ শিক্ষক হিসেবে রাখা হয়। এতদিন অনেকটা কোণঠাসা ছিলেন তিনি।

গত বৃহস্পতিবার হঠাৎ করে ছাত্রদের বিক্ষোভের মুখে আনাস মাদানীকে বহিষ্কার করতে বাধ্য হন মাদ্রাসাটির ৩৪ বছরের মহাপরিচালক আল্লামা শফী। পরদিন আন্দোলনের মুখে তিনিও পদত্যাগ করেন। এর একদিন পরই তিনি ইন্তেকাল করেন।

আল্লামা শফীর ইন্তেকালে বাবুনগরীর অনুসারীরা হাটহাজারী মাদ্রাসায় অনেকটা প্রভাবশালী হয়ে উঠেছেন। হেফজাতে ইসলামের সভাপতির দায়িত্বও বাবুনগরী পেতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

২০১০ সালে প্রতিষ্ঠিত আলোচিত সংগঠন হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী। ২০১৩ সালের ৫ মে শাপলা চত্বরের ঘটনার পর কিছুদিন কারাভোগ করেন তিনি। এরপর সরকারের সঙ্গে আল্লামা শফীর ঘনিষ্ঠতা বাড়লেও বাবুনগরী ছিলেন বিরোধী অবস্থানে। এজন্য তাদের মধ্যে কিছুটা দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয়।

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন