স্ত্রী অন্য পুরুষের সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায়, অতঃপর…

নিউজ ডেস্ক: স্ত্রীর ঘাড় থেকে মাথা কেটে ফেললেন স্বামী, অপরাধ পরকীয়া। সেই কাটা মাথা হাতে নিয়ে থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করলেন ওই স্বামী। গত রোববার এই চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের কর্ণাটকের চিকমাঙ্গালুরতে।

স্বামী বাড়ি ফিরে দেখে স্ত্রী রুপা অন্য পুরুষের সঙ্গে আপত্তিকর পরিস্থিতিতে আছেন। এই দৃশ্য দেখার পর মাথা ঠিক রাখতে পারেনি ওই রুপার স্বামী সতীশ, রাগের মাথায় রুপার সঙ্গীকে কোপ দিতে গিয়ে সেই কোপ লাগে রুপার গায়ে। এক কোপেই ঘাড় থেকে মাথা আলাদা। এ সুযোগে পালিয়ে যায় রুপার সঙ্গী।

জানা জায়, ৩০ বছর বয়সী সতীশের সঙ্গে রূপার বিয়ে হয় নয় বছর আগে। তাদের দুটি সন্তানও রয়েছে। এদিকে গ্রামেরই এক যুবকের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন রূপা। সতীশ তাদের বারবার সতর্ক করলেও লাভ হয়নি কিছুই।  রোববার বেঙ্গালুরু থেকে ফিরে সতীশ এই ঘটনা দেখার পর নিজেকে আর ঠিক রাখতে পারেনি তিনি।

ক্ষপের বসে সেই সাথে-সাথেই স্ত্রী রুপার ঘাড় থেকে মাথা আলাদা করে ফেলেন। তারপর সেই কাটা মাথা একটি ব্যাগে নিয়ে মোটরসাইকেল চালিয়ে ২০ কিলোমিটার দূরের থানায় উপস্থিত হন। এরপর থানায় প্রবেশ করার আগে ব্যাগ থেকে সেই কাটা মাথা বের করে চুলের মুঠি ধরে নিয়ে যান পুলিশের কর্মকর্তার কাছে। পরে ঘটনার শুনার পর পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

ভরতের চিকমাঙ্গালুর পুলিশ সুপার আন্নামালাই কুপ্পাস্বামী জানিয়েছেন, তার বিরুদ্ধে ৩০২ ধারায় খুনের মামলা রেকর্ড করা হয়েছে ৷ সূত্র: নিউজ২৪