স্কুলগামী মেয়েদের ইভটিজিং করায় দোকান বন্ধ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের সদর উপজেলায় একটি দোকান পুলিশ সুপারের নির্দেশে সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। সেই সাথে বন্ধ দোকানের শাটারের ওপর টাঙিয়ে দেয়া হয়েছে ‘এই দোকান থেকে স্কুলগামী মেয়েদের ইভটিজিং করায় সাময়িকভাবে দোকানটি বন্ধ করা হলো’।

জানা যায়, উপজেলার সোনারমোড়ের একটি চায়ের দোকান থেকে জেলা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের ইভটিজিং করে আসছিল বখাটেরা। দোকনটিতে চায়ের আড্ডায় বসে বখাটে যুবকরা স্কুলছাত্রীদের উত্ত্যক্ত করছে এমন অভিযোগে দোকানটি সাময়িকভাবে বন্ধ করা হয়েছে। শুক্রবার (২৬ জুলাই) বিকালে দোকান বন্ধের নোটিশ টাঙান সদর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. কবির হোসেন। আর এই দোকানটি চালাতেন সদর উপজেলার রামকৃষ্টপুর এলাকার মো. মাহবুবের ছেলে শামীম।
এ বিষয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পুলিশ সুপার টিএম মোজাহিদুল ইসলাম জানান, বেশ কয়েকজন ছাত্রী দোকানটির বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিলো। তবে, তারা কারো নাম বলেনি। দোকানটিতে বসে বখাটেরাই এগুলো করতো। ফলে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা হিসেবে দোকানটি আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, কিশোররা সংঘবদ্ধ হওয়ার সুযোগ পেলেই চুরি, ছিনতাই, মাদক সেবন, ইভটিজিংসহ বিভিন্ন অপরাধে জড়িয়ে পড়ে। এসব আস্তানা বন্ধ করতে পারলে ইভটিজিংসহ বিভিন্ন অপরাধ নিয়ন্ত্রণ সম্ভব।

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন