ad

সৌদি হোটেলে একসঙ্গে থাকতে পারবে বিদেশি অবিবাহিত যুগল

সৌদি আরবে এখন থেকে বিদেশি অবিবাহিত যুগলরাও একসঙ্গে থাকার জন্য হোটেলের রুম ভাড়া করতে পারবেন।

দেশটির নতুন একটি ভিসা প্রক্রিয়ায় এই ঘোষণা দেওয়া হয়েছে বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। ঘোষণা অনুযায়ী, নারীরা এখন থেকে একাও থাকতে পারবেন হোটেল রুমে।

আগে যুগলেরা বিবাহিত কিনা সেটার কাগজপত্র দেখাতে বলা হত। কিন্তু সেই নিয়ম এখন বিদেশিদের জন্য শিথিল করা হয়েছে।

সৌদি আরবের ট্যুরিজম অ্যান্ড ন্যাশনাল হেরিটেজ কমিশনের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘সৌদি নাগরিকদের হোটেলে চেক-ইনের সময় তাদের পরিবারের পরিচয়পত্র অথবা সম্পর্কের প্রমাণপত্র নিয়ে যেতে হবে। তবে এই নিয়ম বিদেশিদের জন্য প্রযোজ্য হবে না। পরিচয়পত্র দেখিয়ে সব নারী, সৌদি নারীরাসহ একা হোটেল ভাড়া নিতে পারবে এবং থাকতে পারবে।’

নতুন ভিসা নিয়মে বলা হয়েছে, বিদেশি পর্যটকদের শরীর সম্পূর্ণ ঢেকে রাখতে হবে না। কিন্তু তারা আশা করছে পর্যটকরা মার্জিত পোশাক পরবে।এছাড়া অ্যালকোহল নিষিদ্ধই থাকবে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পৃথিবীর বুকে দীর্ঘ সময় ধরে পর্যটকদের কাছে সৌদি আরব নানা বিধিনিষেধে পূর্ণ একটি দেশ। এখন দেশটি বিদেশি পর্যটক এবং বিনিয়োগকারীদের চোখে একটা তুলনামূলক নমনীয় ইমেজ তৈরি করতে চাইছে। যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান রক্ষণশীল এই দেশে সম্প্রতি বেশ গুরুত্বপূর্ণ কিছু পরিবর্তন এনেছেন। তার মধ্যে নারীদের গাড়ি চালাতে দেয়া এবং পুরুষ অভিভাবকের অনুমতি ছাড়া বিদেশে ভ্রমণের অনুমতির বিষয় রয়েছে। তবে সাংবাদিক জামাল খাসোগির বহুল বিতর্কিত হত্যাকাণ্ডের ফলে এসব পরিবর্তন ধামাচাপা পড়ে যায়।

বিশ্লেষকদের মতে, ভিসা প্রক্রিয়া শিথিল করার ফলে সৌদি আরবে পর্যটক বা মানুষের ভ্রমণ বাড়তে পারে।

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন