সেন্ট মার্টিনে চার দিনে দুই হাজার কেজি প্লাস্টিক বর্জ্য পরিষ্কার

বিশেষ প্রতিবেদক::

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার সেন্ট মার্টিন সৈকত ও এর আশপাশের এলাকা থেকে গত চার দিনে ২ হাজার কেজি প্লাস্টিক বর্জ্য কুড়িয়েছেন ৩০ জন স্বেচ্ছাসেবক যুবক। ‘ক্লিন সেন্ট মার্টিন’ নামের একটি সংগঠনের উদ্যোগে গত সোমবার থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এ পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালনা করা হয়।

সোমবার সেন্ট মার্টিন দ্বীপের ৩০ জন স্থানীয় যুবককে নিয়ে সংগঠনটি যাত্রা শুরু করে। প্রথম দিনে তাঁরা দ্বীপ এলাকার বর্জ্য অপসারণের উদ্যোগ নেন। পরে দৈনিক চার ঘণ্টা করে তাঁরা সৈকতের পাশাপাশি বাজার ও জেটিঘাট এলাকা থেকে এসব প্লাস্টিক বর্জ্য কুড়িয়েছেন।

সংগঠনের অন্যতম সদস্য হাবিব খান বলেন, বর্জ্য পরিষ্কারের অংশ হিসেবে প্রথম দিনে অপচনশীল ময়লা-আবর্জনা প্লাস্টিক, পলিথিন ব্যাগ, বোতল ও বিভিন্ন ধরনের প্লাস্টিক কুড়ানো হয়েছে। ওই দিন প্রায় সাড়ে ৪০০ কেজি বর্জ্য কুড়ানো হয়েছে। পরে সংগঠনের সবার মতামতের ভিত্তিতে ঘোষণা করা হয় এই কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে। গত চার দিনে দ্বীপ এলাকা থেকে প্রায় দুই হাজার কেজি বর্জ্য কুড়ানো হয়েছে। তবে বর্জ্য অপসারণের কোনো ব্যবস্থা না থাকায় বর্জ্যগুলো বস্তাভর্তি করে রাখা হয়েছে।

আরেক সদস্য মাহবুব আলম বলেন, এই সংগঠন শুধু পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজে নয়, দ্বীপের যেকোনো সমস্যায় মানুষের পাশে থাকবে। দ্বীপ রক্ষায় যেকোনো কাজ ক্লিন সেন্ট মার্টিনের সদস্যরা হাতে নেবেন। দ্বীপের মানুষকে সচেতন করতে পারলে এখানে বেড়াতে আসা পর্যটকেরা যত্রতত্রে ময়লা-আবজনা না ফেলে নির্ধারিত স্থানে ফেলতে অভ্যস্ত হবেন।

সেন্ট মার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, ‘স্থানীয় যুবকেরা দ্বীপ থেকে প্রায় দুই হাজার কেজি বর্জ্য কুড়িয়েছেন। এটা প্রশংসনীয় উদ্যোগ। তবে বর্জ্য অপসারণের কোনো ব্যবস্থা না থাকায় সেগুলো বস্তাবন্দী করে রাখা হয়েছে। আমি পারিবারিক কাজে টেকনাফে আছি। এলাকায় ফিরেই বর্জ্য অপসারণের ব্যবস্থা নেওয়া হবে

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন