সাগরে মাছ ধরা শুরু হলে বাংলাদেশে আসবে আরও অসংখ্য রোহিঙ্গা

চ্যানেল আই::
সীমান্তের ওপারে এখনও বাংলাদেশে আসার অপেক্ষায় আছে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর অসংখ্য মানুষ। নতুন আসা রোহিঙ্গা আর সীমান্তগ্রাম শাহপরীর দ্বীপের বাসিন্দারা জানিয়েছেন, সাগরে আবার মাছ ধরা শুরু হলে রোহিঙ্গাদের আসার হার আবার বাড়বে।

বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তের শেষ গ্রাম শাহপরীর দ্বীপ থেকে এরকম নৌকায় টেকনাফের সাবরাংয়ে পৌঁছানো সহজ। তবে ছোট নৌকায় মিয়ানমার থেকে নাফ নদী পার হয়ে বাংলাদেশে আসা ঝুঁকিপূর্ণ।

ট্রলার বা বড় নৌকায় করে দলে দলে আগে এপারে এলেও ছোট নৌকাডুবির ঘটনায় ভয় বেড়েছে। বড় নৌকার সংকটেও রোহিঙ্গারা সহজে আসতে পারছে না এপারে।

এরপরও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নানাভাবে ছোট নৌকায় বিভিন্ন এলাকা দিয়ে প্রতিদিনই যে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে আসছে তারাও জানান, আরো অসংখ্য রোহিঙ্গার সীমান্তের ওপারে অপেক্ষার কথা।

মিয়ানমারে মোট মুসলিম জনগোষ্ঠীর সংখ্যা ৫০ লাখের মতো। এরমধ্যে সীমান্তের তিন থানা এবং রেঙ্গুন মিলে রোহিঙ্গা মুসলিমের সংখ্যা ছিল ১৫ লাখের কাছাকাছি। এদের অর্ধেকেরও বেশি বাংলাদেশে চলে আসতে বাধ্য হয়েছে। সীমান্তের ওপারে অবশিষ্টদের অনেকেরই অপেক্ষার প্রহর শেষ হচ্ছে না।