জাতির উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী

‘সফলতা ব্যর্থতার বিচার আপনাদের হাতে’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন ‘২০১৪ সালে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করে আমার ওপর জনগণ যে বিশ্বাস ও আস্থা রেখেছিলেন, প্রাণপণ চেষ্টা করেছি তার মর্যাদা রক্ষা করার। কতটুকু সফল বা ব্যর্থ হয়েছি, সে বিচার আপনারাই করবেন।’ শুক্রবার (১২ জানুয়ারি) সন্ধায় জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২৮ বছর বাংলাদেশের জনগণ বঞ্চিত থেকেছে। এই ২৮ বছর যারা ক্ষমতা দখল করেছে, তারা নিজেদের আখের গোছাতেই ব্যস্ত ছিল। জনগণের কল্যাণে তারা কোনও ভূমিকা রাখেনি। বরং আমরা জনকল্যাণে যেসব কাজ হাতে নিয়েছিলাম, তারা তা বন্ধ করে দেয়। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট থেকে ১৯৯৬ সালের ২৩ জুন পর্যন্ত ২১ বছর এবং ২০০১ সালের পহেলা অক্টোবর থেকে ২০০৯ সালের ৬ জানুয়ারি পর্যন্ত সাত বছর- এই ২৮ বছর জনগণ বঞ্চিত থেকেছে বলে মনে করেন প্রধানমন্ত্রী।

ad

শেখ হাসিনা বলেন, ‘২০০৯ সালে সরকার গঠন করে আশু করণীয়, মধ্য-মেয়াদী ও দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণ করে তা বাস্তবায়ন করে যাচ্ছি। পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি। গ্রহণ করেছি ১০ বছর মেয়াদী প্রেক্ষিত পরিকল্পনা।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমি শুধু এটুকু বলতে চাই, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এই দেশ স্বাধীন করেছেন, একটি আদর্শ ও চেতনা ধারণ করে। বাংলাদেশের মানুষকে ক্ষুধা, দারিদ্র্য, অশিক্ষার হাত থেকে মুক্ত করে একটি সুন্দর জীবন নিশ্চিত করার প্রত্যয় নিয়ে স্বাধীনতার সংগ্রাম করেছিলেন। ২৪ বছরের সংগ্রাম ও মহান মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের মধ্য দিয়ে স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ তিনি প্রতিষ্ঠা করে গেছেন।’