শোবিজ ছেড়ে ধর্মে মনোযোগী বলিউড অভিনেত্রী

শোবিজ জগত থেকে বিদায়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলিউড সুপারস্টার সালমান খানের ‘জয় হো’ সিনেমার সহঅভিনেত্রী এবং ‘বিগ বস সিক্স’ প্রতিযোগী সানা খান। ধর্মীয় কারণে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

সিনেমার পাশাপাশি হিন্দি টিভি সিরিয়াল ও মিউজিক ভিডিওতে কাজ করেছেন সানা। ফটো শেয়ারিং সাইট ইনস্টাগ্রামে লম্বা একটি বিবৃতিতে ৩৩ বছর বয়সি এই অভিনেত্রী জানান, ইন্ডাস্ট্রি থেকে তিনি অনেক খ্যাতি, সম্মান ও অর্থ উপার্জন করেছেন। কিন্তু এটিই তার জীবনের লক্ষ্য নয়। তিনি এখন সৃষ্টিকর্তার নির্দেশ মেনে চলবেন ও মানুষের সেবা করবেন।

সানা খান লিখেছেন, ‘জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে আজ আপনাদের সঙ্গে কথা বলছি। গত চার বছর ধরে আমি শোবিজ জগতে কাজ করছি এবং এই সময়ে অনেক খ্যাতি অর্জন করতে পেরেছি। অর্থ উপার্জন করেছি এবং ভক্তদের কাছে সম্মান পেয়েছি, এজন্য তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরে আমার মনে হচ্ছে: অর্থ ও খ্যাতি পেতেই কি মানুষ পৃথিবীতে এসেছে? অসহায়দের পাশে দাঁড়ানো কি তার দায়িত্ব নয়? যে কোনো সময় মৃত্যু হতে পারে এই কথা চিন্তা করা কি উচিত নয়? আর যদি মৃত্যু হয় তাহলে কি হবে? আমি দীর্ঘদিন ধরে এই দুই প্রশ্নের উত্তর খুঁজছি। বিশেষ করে দ্বিতীয়টির, মৃত্যুর পর কী হবে? যখন আমার ধর্মে এর উত্তর খুঁজেছি, বুঝতে পারলাম, পৃথিবীর এই জীবন প্রকৃতপক্ষে মৃত্যুর পরের জীবনের কল্যাণের জন্য। আর এটি তখনই কল্যাণময় হবে যখন সৃষ্টিকর্তার নির্দেশ মতো জীবনযাপন করব এবং অর্থ ও খ্যাতিকে মূল লক্ষ্যে পরিণত না করব।’

তিনি আরো লেখেন, ‘আমি ঘোষণা দিচ্ছি, আজ থেকে শোবিজের জীবনযাপনকে বিদায় জানাচ্ছি এবং মানুষের সেবা করব ও সৃষ্টিকর্তার নির্দেশ মেনে চলব। আমার সকল ভাই-বোনদের অনুরোধ করব আমার জন্য প্রার্থনা করবেন, আল্লাহ যেন আমাকে মাফ করেন এবং আমার সংকল্প অনুযায়ী সৃষ্টিকর্তার নির্দেশ মেনে চলতে পারি। পাশাপাশি সকল ভাই-বোনকে অনুরোধ করব, শোবিজ নিয়ে আমার সঙ্গে আর আলোচনা করবেন না।’

‘হাল্লা বোল’, ‘জয় হো’, ‘ওয়াজাহ তুম হো’ এবং ‘টয়লেট: এক প্রেম কথা’সহ বেশ কিছু সিনেমায় অভিনয় করেছেন সানা খান। ‘বিগ বস’র পাশাপাশি ‘খতড়ো কে খিলাড়ি’ রিয়েলিটি শোয়ে অংশ নিয়েছেন তিনি। এছাড়া ভারতের দক্ষিণী সিনেমাতেও অভিনয় করেছেন সানা।

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন