রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এনজিওতে কর্মরত স্থানীয়দের ছাঁটাই বন্ধ না হলে কঠোর কর্মসূচী

শফিক আজাদ, উখিয়া:
রোহিঙ্গাদের কারনে ক্ষতিগ্রস্থ উখিয়া-টেকনাফের ছেলে-মেয়েদের শতভাগ চাকরী নিশ্চিত ও ছাঁটাই বন্ধে পরবর্তী কর্মসূচি গ্রহন উপলক্ষে এক জরুরী সভা রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উখিয়ার নুর হোটেলের তৃতীয় তলায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিভিন্ন আইএনজিও ও এনজিও সংস্থায় কর্মরত স্থানীয় ছেলেরা এই বৈঠকের আয়োজন করে। এতে পরবর্তী বিভিন্ন করণীয় নিয়ে বিষদ আলোচনার পাশাপাশি দলমত নির্বিশেষে সকল স্থরের ছেলে/মেয়েদের এলাকার বেকার যুবক-যুবতীদের চাকুরীর স্বার্থে একত্রিত হওয়ার আহবান জানানো হয়। তাছাড়া এসব ছাঁটাই বন্ধ না হলে কঠোর কর্মসূচীর ঘোষণা দেওয়া হয় সভায়।

উক্ত সভায় (১৪ জানুয়ারি) সন্ধা ৬ টায় উখিয়ার নুর হোটেলের তৃতীয় তলায় সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এতে উখিয়ার সমাজ উন্নয়ন ও অধিকার আদায়ে কাজ করা সকল সংগঠনের সংগঠকদের আমন্ত্রণ জানানো হয়। এছাড়াও রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাজ করা বিভিন্ন এনজিওতে গণহারে স্থানীয়দের চাকরিচ্যুত করার প্রতিবাদে ও চাকরি ফেরতের দাবীতে সোমবার (১৪ জানুয়ারী) কক্সবাজারে যে বিক্ষোভ সমাবেশের ডাক দেওয়া হয়েছে তার প্রতি সমর্থন জানানো হয় বৈঠকে।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, সুজনের উখিয়াস্থ সভাপতি সাংবাদিক নুর মোহাম্মদ সিকদার, সাংবাদিক শফিক আজাদ, এনজিওকর্মী সাইফুল করিম, সাজ্জাদুল ইসলাম, হেলাল উদ্দিন, আমিনুল কবির চৌধুরী, সালাউদ্দিন আকাশ, অলি উল্লাহ, ইব্রাহিত খলিল, ইসমাঈল, শাহ জালাল, ইব্রাহিম, মোঃ ইউনূছ, জামাল, খাইরুল আমিন, সোহেল খাঁন এবং মিজান প্রমূখ।

উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক সময়ে উখিয়া-টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এনজিওতে কর্মরত স্থানীয়দের ছাঁটাই করে বহিরাগতদের কর্মসংস্থান করে দিচ্ছে কতিপয় কিছু এনজিও কর্মকর্তা। এনিয়ে গত বেশ কিছুদিন ধরে কক্সবাজারে সর্বস্তরের মানুষের মধ্যে প্রচন্ড ক্ষোভ বিরাজ করছে। বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমেও এ সংক্রান্ত সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। গত কয়েকদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও বিষয়টি নিয়ে তুমুল প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে।

ad