রোহিঙ্গাদের নিয়ে প্রিয়াঙ্কার সিনেমা ‘সারভাইবাল’

বিনোদন ডেস্ক : বলিউডের পর হলিউডে দ্যুতি ছড়ানো তারকা প্রিয়াঙ্কা চোপড়া বলেছেন, রোহিঙ্গা শিশুদের সংগ্রামী জীবন নিয়ে কখনো সিনেমা বানালে তার নাম দেবেন ‘সারভাইবাল’ (টিকে থাকা)।

অভিনেত্রী, সংগীত শিল্পী, প্রযোজক এবং মানবতাবাদী এই শিল্পী গত সোমবার চার দিনের সফরে বাংলাদেশে আসেন। ইউনিসেফের শুভেচ্ছা দূত প্রিয়াঙ্কা সফরের প্রায় পুরোটা সময় কক্সবাজারে রোহিঙ্গা আশ্রয় ক্যাম্পে কাটান।

এ সময় তিনি রোহিঙ্গাদের মুখ থেকে শুনেন মিয়ানমার সেনা বাহিনীর পরিচালিত অত্যাচার আর বর্বরতার কথা। তিনি রোহিঙ্গা শিশুদের সঙ্গেও অনেক সময় কাটান। সফরের সমাপনীতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঢাকার ল্য মেরিডিয়ানে তিনি গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন।

এ সময় এক প্রশ্নের জবাবে প্রিয়াংকা বলেন- এখনো পাকা কথা বলতে পারছি না। তবে, কখনো যদি সুবিধা বঞ্চিত রোহিঙ্গা শিশুদের নিয়ে কোনো সিনেমা বানাতে পারি, তাহলে তার নাম দেবো সারভাইবাল। প্রিয়াঙ্কা নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে লিখেছেন, “আমি কক্সবাজার থেকে লস অ্যাঞ্জেলেসে ফিরে যাবো। তবে, আমার মাথায় একটি বিষয়ই ঘুরপাক খাচ্ছে যে, ‘আমি কত সৌভাগ্যবান, যে আমি এত সুবিধা পেয়েছি’। আমি আমার জীবন গড়ার পেছনে সহায়তাকারী প্রতিটি ব্যক্তিকে কৃতজ্ঞ চিত্তে স্মরণ করছি।”

তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক থেকে এক লাইভ বার্তায় রোহিঙ্গা শিশুদের সহায়তায় বিশ্ববাসীকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। যদিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার দেশের অনেকে আক্রমণও করছেন।

সংবাদ সম্মেলনে আল জাজিরা সে বিষয়ে প্রিয়াংকার দৃষ্টি আকর্ষণ করে। জবাবে অসহায় শিশুদের জন্য তার কাজ ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে এমন কোনো দিকে মনোনিবেশ করতে তিনি রাজি নন বলে সেই সমালোচনা উড়িয়ে দেন।