রোহিঙ্গাদের জন্য ৬ লাখ জন্মনিরোধক দেশে এলো

উখিয়া নিউজ ডেস্ক::
কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শরণার্থী এবং এসব শরণার্থী শিবিরের আশপাশের এলাকায় বসবাসরত বাংলাদেশিদের জন্য জন্মনিরোধক দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা (ইউএসএআইডি)।
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ইউএসএআইডি ত্রাণ সহায়তা হিসেবে বাংলাদেশ সরকারকে ছয় লাখ ২২ হাজার ৮০০ ডোজ ইনজেকটেবল কন্ট্রাসেপ্টিভ বা ইনজেকশনের মাধ্যমে ব্যবহারযোগ্য জন্মনিরোধন দিয়েছে।
সব মিলিয়ে যুক্তরাষ্ট্র এ পর্যন্ত বাংলাদেশকে প্রায় ১০ লাখ কন্ট্রাসেপ্টিভ দিয়েছে, যার আর্থিক মূল্য ৯ লাখ ১ হাজার ২৩২ মার্কিন ডলার বা সাড়ে সাত কোটি টাকা।
খবর এনটিভির
আজ বুধবার ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন দূতাবাস থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা বাসস এসব কথা জানিয়েছে।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এর আগে গত ফেব্রুয়ারি মাসে দুই লাখ ৯২ হাজার ডোজ কন্ট্রাসেপ্টিভ এবং ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাসে ৩০ লাখ প্যাকেট ওরস্যালাইন দেওয়া হয়।
গত বছরের ২৫ আগস্ট থেকে যুক্তরাষ্ট্র সরকার বাংলাদেশে অবস্থিত রোহিঙ্গা শরণার্থীদের এবং যেসব এলাকায় রোহিঙ্গারা আশ্রয় নিয়েছে সেসব এলাকার জনগণকে ১১০ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি আর্থিক সহায়তা দিয়েছে।

২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট থেকে এ পর্যন্ত প্রায় সাত লাখ রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে পালিয়ে কক্সবাজারে আশ্রয় নিয়েছে। এসব রোহিঙ্গা নাগরিক প্রকট স্বাস্থ্য ঝুঁকির সম্মুখীন হচ্ছে। কারণ হিসেবে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, রোহিঙ্গাদের বর্তমান আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে স্বাস্থ্যসেবা ও স্বাস্থ্য সামগ্রির অপ্রতুলতা রয়েছে। বিশেষ করে, নবজাতক, শিশু, স্তনদাত্রী ও গর্ভবতী নারীরা অপুষ্টিতে ভুগছে, সংক্রামক রোগ ও খাদ্য অনিরাপত্তার শিকার হচ্ছে।


ইউএসএআইডির মিশন ডিরেক্টর ইয়ানিনা জারুজেলস্কি বলেন,‘সবচেয়ে অরক্ষিত রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জীবন রক্ষাকারী ও প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য সামগ্রি ব্যবহারের সুযোগ করে দিতে ইউএসএআইডি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’