রোহিঙ্গাদের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের আরও ১৮ কোটি মার্কিন ডলার ঘোষণা

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য মানবিক সহায়তায় ১৮ কোটি মার্কিন ডলারের অতিরিক্ত তহবিল ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্র। মূলত রাখাইন, বাংলাদেশ ও এ অঞ্চলের বিভিন্ন জায়গায় আশ্রিত রোহিঙ্গাদের পেছনে এই অর্থ ব্যয় করা হবে।

বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে দেশটির জাতিসংঘের রাষ্ট্রদূত লিন্ডা থমাস গ্রিনফিল্ড রোহিঙ্গাদের জন্য নতুন এ সহায়তার ঘোষণা দেন।

মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর জানায়, নতুন এই অর্থায়নের মাধ্যমে ২০১৭ সালের আগস্ট থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের মোট সহায়তার পরিমাণ ১ দশমিক ৫ বিলিয়ন ডলার। সাত লাখ ৪০ হাজারেও বেশি রোহিঙ্গা রাখাইন রাজ্য থেকে জাতিগত নিধন এবং অন্যান্য ভয়াবহ নৃশংসতা ও নির্যাতন থেকে রক্ষা পেতে বাংলাদেশে পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়েছিল।

মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর বলছে, বাংলাদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের জন্য ১ দশমিক ২ বিলিয়ন ডলারেরও বেশি অন্তর্ভুক্ত করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এতে বাংলাদেশে আশ্রিত প্রায় ৯ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থী উপকৃত হয়েছে।

এ সংকটের জন্য মার্কিন মানবিক সহায়তা রোহিঙ্গাদের শিক্ষা, খাদ্য নিরাপত্তা, স্বাস্থ্য, পুষ্টি, সুরক্ষা, আশ্রয়, দুর্যোগ প্রতিক্রিয়া, পানি, স্যানিটেশন এবং স্বাস্থ্যবিধিসহ বিভিন্ন খাতে বিতরণ করা হয়েছে।

রোহিঙ্গা সংকট মোকাবেলা ও এর সমাধানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের অব্যাহত প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করে মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর।

দেশটির পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র নেড প্রাইস বলেন, বাংলাদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য মানবিক কার্যক্রমে এ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র থেকে ১ দশমিক ২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তা গেছে।

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন