যৌনদাসী বানিয়ে অভিনেত্রীদের…

#মিটু নিয়ে এখন উত্তাল বলিউড। এরইমধ্যে এ আন্দোলনে উঠে এসেছে অনেক প্রযোজক থেকে শুরু করে অভিনেতাদের নামও। তবে এবার ‍শুধু যৌন হয়রানি করেই নয় বরং যৌনদাসী বানিয়ে অভিনেত্রীদের পাচার করা অভিযোগ উঠেছে এক কোরিওগ্রাফারের বিরুদ্ধে।
ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে প্রকাশ করা হয়, সম্প্রতি কানাডা সরকার এক নারী ডান্সারকে ভারতে ফেরত পাঠায়। অভিযোগ ছিলো, ওই নারীকে জোর করে কানাডায় দেহ ব্যবসায় নামানো হয়েছিল। পরে কানাডার পুলিশ তাকে উদ্ধার করে ভারতে পাঠিয়ে দেয়। আর এরপরই প্রকাশ্যে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য।

ad

মুম্বাই পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ ওই নারীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। সেখানেই উঠে আসে বলিউডের কোরিওগ্রাফার অ্যাগনেস হ্যামিলটনের নাম। অভিযোগ, নারী ডান্সারদের বিভিন্ন অ্যাসাইনমেন্টে পাঠাতেন অ্যাগনেস।

সেখানেই জোর করে দেহব্যবসায় নামানো হতো ওই নারীদের। কেনিয়া, বাহরিন ও দুবাইতেও অনেক নারীকে এভাবে পাঠিয়েছে অ্যাগনেস। বাইরে মুখ খুললে মহিলাদের ফাসিয়ে দেওয়া হবে বলেও ভয় দেখাতেন কোরিওগ্রাফার। এছাড়া নারী প্রতি ৪০ হাজার টাকা নিতেন অ্যাগনেস।

অভিযোগ সামনে আসার পর অ্যাগনেসকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বাইরের দেশে কত জন নারীকে তিনি পাচার করেছেন, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।