ad

মিয়ানমারে ভূমিধসে অর্ধশতাধিক মানুষের প্রাণহানি

মৌসুমি বৃষ্টিপাতে সৃষ্টি হওয়া ভূমিধসে মিয়ানমারের মন প্রদেশে ৫১ জনের মৃত্যু হয়েছে। ভুক্তভোগীদেরকে ত্রাণ সহযোগিতা দেয়ার জন্য সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি তাদের রবিবারের এক প্রতিবেদনে সে দেশের ফায়ার সার্ভিস সূত্রকে উদ্ধৃত করে এসব তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবছর বর্ষাকালের ভারী বর্ষণের ফলে সৃষ্ট ভূমিধসে মিয়ানমার এবং দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার অন্য দেশগুলোর অসংখ্য বসতবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং বাসিন্দারা স্থানান্তরিত হতে বাধ্য হন। কিন্তু গত শুক্রবার মিয়ানমারের মোন রাজ্যের দক্ষিণপূর্ব অঞ্চলে হওয়া মারাত্মক ভূমিধসটি দেশটির সরকারকে কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি করেছে। অঞ্চলটির বসতবাড়িগুলোর ছাদ পর্যন্ত পানি উঠে গেছে। রোববারেও পাউং শহরের কাদাপানি থেকে ভুক্তভোগীদেরকে উদ্ধার করে উদ্ধারকর্মীরা।

একটানা কয়েক দিনের ভারী বৃষ্টিপাতে মিয়ানমারের মা-লাত পাহাতে এই ভূমি ধসের সৃষ্টি হয়। এত অনেক বাড়ি-ঘর ও যানবাহন মাটির নিচে চাপা পড়ে। দেশটির পাওয়াং, মাওলামাইন, মুডন, থানবায়জায়াত, কাইকমারাও এবং য়ে শহর প্লাবিত হওয়ায় ওই সব এলাকার স্কুল কলেজগুলো বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জাও মিন তুন এএফপিকে বলেন, আমাদের আঞ্চলিক সেনাবাহিনীর কমান্ডরা বিপর্যস্ত এলাকাগুলোতে অনুসন্ধান ও উদ্ধার কাজে সহযোগিতা করছে। তিনি আরও বলেন, এসব এলাকায় খাদ্য সরবরাহের জন্য হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হবে। আন্দামান সাগরের উপকূলে অবস্থিত মোন রাজ্যের জন্যই এসব পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

ad