মিয়ানমারে ব্যাপক ধরপাকড়, এক নারী নিহত

মিয়ানমারের তৃতীয় সপ্তাহের সেনাশাসন বিরোধী আন্দোলনে ব্যাপক ধরপাকড় চালিয়েছে পুলিশ। এসময় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স। স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাতে হতাহতের খবর নিশ্চিত করেছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম। এ নিয়ে মিয়ানমারের বিক্ষোভে নিহতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে চার জনে।

শনিবার ইয়াঙ্গুনসহ বড় শহরগুলোতে সকালে বিক্ষোভ শুরু পর ধরপাকড় চালায় পুলিশ। এসময় সাংবাদিকসহ বেশ কয়েকজনকে আটক করা হয়। বিভিন্ন স্থানে পুলিশকে দেখা গেছে আগ্রাসী ভূমিকায়। লাঠিচার্জের পাশাপাশি জলকামান ব্যবহার করেও আন্দোলন ছত্রভঙ্গ করে তারা। এ পর্যন্ত এটিই দেশটির আন্দোলনে সবচেয়ে বড় পুলিশি বাধা হিসেবে উল্লেখ করেছে রয়টার্স।

এদিন মন দিবসের র্যালিতে যোগ দেয়া আদিবাসীরাও সেনা শাসনের অবসানের দাবিতে বিক্ষোভ করে। এই বিক্ষোভে আন্দোলনকারীদের ধাওয়া করে দাঙ্গা পুলিশ। এসময় বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে তিন সাংবাদিককে আটক করা হয় বলে জানিয়েছে বার্তাসংস্থা এএফপি। পুলিশের বিরুদ্ধে রাবার বুলেট ও স্টান গ্রেনেড ব্যবহারের অভিযোগ করেছে বিক্ষোভকারীরা।

এদিকে মনওয়া শহরের একটি র্যালিতে গুলিবিদ্ধ হয়ে এক নারী মারা গেছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম। যদিও আন্দোলনকারী পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছে কি না সেটি এখনও অস্পষ্ট। এ বিষয়ে এখনও কোন মন্তব্য করেনি মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ। শুক্রবার জাতিসংঘে নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত সেনাশাসন অবসানের উদ্যোগ নিতে সংস্থাটির প্রতি আহ্বান জানানোর পরদিনই দেশটিতে এমন সংঘর্ষের ঘটনা ঘটলো।

Loading...
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন