ভালোবাসার সম্পর্কের ক্ষেত্রে যে ভুলগুলো করে থাকেন মেয়েরা

প্রিয়.কম) চারপাশের সকলের সাথে যোগাযোগ করার ক্ষেত্রে আমাদের প্রত্যকের আলাদা কিছু গুণ রয়েছে। সাধারণত আমাদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের ভিত্তিতে আমাদের আচরণ নির্ধারিত হয়ে থাকে। যেখানে আমরা সকলেই আলাদা স্বভাব এবং চরিত্রের অধিকারী সেখানে কেউ হয়ে থাকি খুব চুপচাপ, আবার কেউ কথা কথা বলতে খুব ভালোবাসি! কেউ হয়তো ঘুরতে ভালোবাসি, অথবা কেউ ভালোবাসি ঘরে বসে বই পড়তে। তবে এতো বৈচিত্র্যের ভেতরে কিছু সাধারণ চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য থাকে সকলের মাঝে যা কিনা অনেক সময় নিজেদের ভালোবাসার সম্পর্কগুলোর প্রতি হুমকি হয়ে দাঁড়ায়।

একটা ভালোবাসার সম্পর্কের ক্ষেত্রে চাওয়া-পাওয়া এবং প্রত্যাশা থাকে দু’দিক থেকেই অনেক বেশী। প্রতিটা সময়ে সকলে আশা করে থাকেন অপরপক্ষ থেকে যেন নিজের মনের মতো করে সবটুকু পাওয়া যায়। কিন্তু সকলের মাথায় এই চিন্তাটাও থাকা দরকার- আমরা নিজেরা অপরপক্ষকে ঠিকভাবে বুঝতে পারছি তো? সে কী চাচ্ছেন অথবা কী অপছন্দ করছেন সেটা আমরা জানতে পারছি তো?

একটা ভালোবাসার সম্পর্কের ক্ষেত্রে উভয় পক্ষ থেকেই ভুল হতে পারে। তবে মেয়েদের দিক থেকে কিছু সাধারণ ভুল হয়ে থাকে বলে অনেক ক্ষেত্রেই ভালোবাসার সম্পর্কে নানান ধরণের সমস্যা সৃষ্টি হয়। তেমনই কিছু ভুল তুলে ধরা হলো।

১/ মেয়েরা নিজের মূল্য বুঝতে চান না

বেশীরভাগ মেয়েরাই খারাপ ছেলেদের প্রতি বেশী আকৃষ্ট হয়ে থাকেন। এমনকি অনেকেই আরেকটি ভালোবাসার সম্পর্কে জড়িত ছেলেদেরকে পছন্দ করে থাকেন। কিন্তু তারা নিজেরা নিজেদের প্রশ্ন করতে ভুলে যান, তারা আসলে কি চান! তারা নিজেদের মূল্য দিতে ভুলে যান এবং নিজেদের তারা খুব ছোট ভেবে থাকেন। বেশীরভাগ সময়ে মেয়েরা আতংকে থাকেন এই ভুল ধারণা ভেবে যে, তাদেরকে কখনোই কেউ ভালোবাসবে না!

২/ অনেক মেয়েই সঙ্গীর ব্যক্তিগত ব্যাপারকে সম্মান করেন না

পুরুষরা সাধারণত তাদের কঠিন এবং খারাপ সময়ে খুব চুপচাপ হয়ে যান এবং সেই বিষয় নিয়ে কথা বলতে অপছন্দ করেন এবং চুপচাপ থেকে সেই সমস্যা নিয়ে কাজ করে সমাধান করতে পছন্দ করেন। কিন্তু মেয়েদের ক্ষেত্রে সেই ব্যপার একদম ভিন্ন। তারা তাদের চান তাদের সঙ্গীরা যেন তাদের সমস্যা নিয়ে কথা বলেন, তাকে জানান। অনেক ভুল বোঝাবুঝি এখান থেকেই শুরু হয়।

৩/ সঙ্গীকে বদলানোর চেষ্টা করেন মেয়েরা

আপনার পছন্দের মানুষটার সাথে ভালোবাসার সম্পর্কে যেতে চাইলে, তিনি যেমন তেমনভাবেই তাকে গ্রহণ করা উচিৎ। তার ছোটখাটো কোন অভ্যাস বদলাতে চাইলে প্রথমে আপনি তাকে যত্ন সহকারে বোঝাতে পারেন। অতিরিক্ত সমালোচনা করলে তার মনে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হবে। বরং তাকে বুঝিয়ে এবং তাকে অনুপ্রাণিত করে তার বাজে অভ্যাস বদলাতে সাহায্য করতে পারেন আপনি।

৪/ সম্পর্কে খুব দ্রুত এগোতে চান অনেকেই

যে কোন সম্পর্কেই সকলের উচিৎ ধীরে সুস্থে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়া। ভালোবাসার ক্ষেত্রেও এই কথা প্রযোজ্য তো বটেই বরং এক্ষেত্রে মেয়েদের উচিৎ আরো বেশী সময় নিয়ে তাদের সঙ্গীকে বোঝা। বেশীরভাগ সময়ে মেয়েরা যে ভুলটা করেন, খুব অল্প সময়ের মাঝেই তারা ভালোবাসার মানুষটার প্রতি মানসিকভাবে সম্পূর্নভাবে নির্ভরশীল হয়ে পড়েন। কিন্তু অত অল্প সময়ে তিনি হয়তো জানতেও পারলেন না, যার সাথে মানসিকভাবে জড়িয়ে পড়ছেন, তিনি তার জন্যে সঠিক মানুষ কি না!

৫/ অনেক বেশী আশা করেন

বেশীরভাগ নারীরা সম্পর্কে থাকা অবস্থায় অনেক বেশী আশা এবং প্রত্যাশা করে থাকেন তাদের সঙ্গীদের কাছ থেকে। তবে সমস্যা হয়ে দাঁড়ায় যখন দেখা যায় যে, তাদের বেশীরভাগ প্রত্যাশা খুব কাল্পনিক ধাঁচের হয় অথবা সিনেমার মতো হয়। তারা বুঝতে চেষ্টা করেন না যে, তাদের সঙ্গী বাস্তবতার সাথে লড়াই করে চলা একজন মানুষ।

ভালোবাসার সম্পর্ক হয়ে থাকে অনেক বেশী প্রতিকূল অবস্থা পাড়ি দেওয়ার সময় একে অন্যের সহযাত্রী হওয়ার জন্য। একে অন্যের উপর অকারণে প্রত্যাশার চাপ বাড়িয়ে দেওয়ার জন্যে নয়।

৬/ অন্যের সম্পর্কের সাথে তুলনা

আপনার জীবন এবং আপনার সম্পর্ককে অন্যের সম্পর্কের সাথে তুলনা করবেন না কখনোই। কারণ সকলের জীবন ধারা এবং সম্পর্কের ধরন ভিন্ন।

৭/ নিজের খেয়াল রাখতে ভুলে যান

সম্পর্কে থাকাকালে অনেক সময় মেয়েরা তাদের নিজের প্রতি যত্ন নেওয়ার কথা, নিজের প্রতি খেয়াল রাখার কথা ভুলে যান। অথচ, প্রত্যেক মানুষের উচিৎ নিজের প্রতি সবসময় যত্নশীল থাকা।

সূত্র: ব্রেইন আর্টিকেলস