ad

ব্রীজ উন্নয়ন কাজে ধীরগতি, বীর বাহাদুরের ক্ষোভ

নুরুল কবির, বান্দরবান:
বান্দরবানের সদর উপজেলার রেইচা-গোয়ালিয়াখোলা এলাকায় একটি ব্রিজ নির্ধারিত সময় পার হওয়ার পরও ব্রিজের অর্ধেক কাজও শেষ করতে পারেনি ঠিকাদার। এখনো বাকি অধিকাংশ কাজ। নির্মাণ কাজ হতাশাজনক হওয়ার ফলে মানুষের দূর্ভোগ লাগবে আরো অপেক্ষা করতে হচ্ছে।

এদিকে কাজের এই ধীরগতি দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পার্বত্য বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি। মঙ্গলবার সকালে সরেজমিনে ওই প্রকল্প এলাকা পরিদর্শণকালে উপস্থিত সাংবাদিকদের এই ক্ষোভের কথা জানান মন্ত্রী।

এসময় মন্ত্রী বলেন- হাজার হাজার মানুষ এই ব্রিজের আশায় রয়েছে। অথচ ঠিকাদার লাভ লোকসান নিয়ে বসে আছে। ঠিকাদার মানুষের লাভের কথা চিন্তা না করলেও একজন জন প্রতিনিধি হিসেবে জনগণের কথা আমাদের চিন্তা করতে হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ২০১৬ সনের ৭ মার্চ বান্দরবানের রেইচা-গোয়ালিয়াখোলা রাস্তায় সাঙ্গু নদীর উপর ২২০মিটার পিসি গার্ডার ব্রিজের কার্যাদেশ পায় শেখ হেমায়ত আলী এন্ড ইউ টি মং (জেভি) প্রতিষ্ঠান। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের অর্থায়নে বাস্তবায়নাধীন গার্ডার ব্রিজটির বরাদ্ধ ধরা হয়েছিল ১২কোটি ৬১ লাখ ৫৮হাজার টাকা। কার্যদেশ অনুযায়ী দেড় বছরের মধ্যেই ব্রিজ নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল। অথচ সাড়ে আড়াই বছর পার হয়ে গেলেও এলজিইডি কর্তৃপক্ষ ও ঠিকাদারের উদাসীনতায় ব্রিজের অর্ধেক কাজও শেষ করা হয়নি। সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার সম্পূর্ণ কাজ শেষ হতে আরো ছয় মাস সময় চেয়েছে।

এই প্রসঙ্গে বান্দরবান স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)র নির্বাহী প্রকৌশলী আবু তালেব চৌধুরী জানান- এ পর্যন্ত ব্রিজের পয়ষট্টি পার্সেন্ট কাজ শেষ হয়েছে। কাজের ধীরগতি নিয়ে ইতোপূর্বে ঠিকাদারকে শোকজ করা হয়েছে, উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষে অনেক লেখা লেখি হয়েছে। এসময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবুল কালাম,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলী হোসেন,আঞালিক পরিষদ সদস্য কাজল কান্তি দাশ উপস্থিত ছিলেন।

ad