বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ ফাউলের শিকার ‘নেইমার’

নিউজ ডেস্ক::
নেইমারের কথা সবারই কম-বেশি জানা আছে। গত ফেব্রুয়ারিতে পায়ের পাতায় চোট পেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সর্বশেষ পুরোপুরি ফিট হয়ে রাশিয়ায় আসতে পারেননি ব্রাজিলের এই উদীয়মান তারকা। বিশ্বকাপে নেইমারকে ঠেকাতে যেন সরব প্রতিপক্ষ দলগুলো। আর তাই তাকে আটকাতে ক্রমাগত ট্যাকল করার কৌশল এঁটেছে প্রতিপক্ষরা। যে কারণে বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ ফাউলের শিকার হয়েছেন নেইমার।

কিন্তু এরপরও ব্রাজিলের এই ফরোয়ার্ডের বিপক্ষে ‘ডাইভ’ দেওয়ার অভিযোগ উঠছে। রয়েছে বিস্তর সমালোচনা। প্রতিপক্ষ দলের খেলোয়াড়েরা একটু বাধা দিলেই নাকি নেইমার কাটা কলাগাছের মতো পড়ে যান! প্রতি ম্যাচেই নেইমার মাঠে কিছুক্ষণ পড়ে থাকবেন, এটা যেন রীতি হয়ে গেছে!

ad

বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচেই সুইসরা তাকে যেভাবে ট্যাকল করেছে, সেটি নেইমারের ভীতিকে আরো বাড়িয়ে দিয়েছে। সেই ম্যাচে তাকে দশবার ফাউল করা হয় যা কিনা ১৯৯৮ বিশ্বকাপের পর থেকে এই টুর্নামেন্টের এক ম্যাচে সর্বোচ্চ।

বিশ্বকাপে অনেক দূর যেতে হলে সুস্থ থেকে নিজের ফর্ম ধরে রাখাটা প্রাথমিক শর্ত। ধারণা করা হচ্ছে, ডিফেন্ডারের ট্যাকল থেকে নিজেকে রক্ষার জন্যই এমন ‘ডাইভ’ দিচ্ছেন নেইমার। আর রেফারি যখন হলুদ কার্ডে অনীহা দেখান, একটু বেশি চোট পাওয়ার ভান করা ছাড়া উপায়ও বা কী!