বিপুল ইয়াবা ও টাকা নিয়ে টেকনাফের শাহনেওয়াজ ও তার ২ সহযোগী ঢাকায় আটক

ডেস্ক রিপোর্ট ::
রাজধানীর ডেমরা থেকে সাড়ে ২৪ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট ও প্রায় পাঁচ লাখ টাকাসহ ৩ মাদক কারবারিকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-১)। শনিবার (২ নভেম্বর) বিকাল পৌনে ৪টার দিকে ডগাই মধ্যপাড়ায় এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া ইউংয়ের সিনিয়র সহকারী পরিচালক (এএসপি) মিজানুর রহমান ভুইয়া এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

আটক তিন মাদক কারবারি হলো— কক্সবাজার টেকনাফের মো. শাহনেওয়াজ (২২), দিনাজপুরের মো. মাসুদুর রহমান ওরফে মাসুদ (৩৮) ও গোপালগঞ্জের মো. টিটু (৪৩)। এসময় তাদের হেফাজত থেকে ২৪ হাজার ৫০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ২টি মোবাইল ফোন ও নগদ ৪ লাখ ৯৬ হাজার টাকা জব্দ করা হয়।

Loading…
এএসপি মিজানুর রহমান ভুইয়া জানান, আটক তিনজনই আন্তঃজেলা মাদক কারবারি চক্রের সদস্য। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা স্বীকার করেছে, তারা কক্সবাজারের সীমান্তবর্তী এলাকায় নদীপথে চোরাচালানের মাধ্যমে মিায়ানমার থেকে ইয়াবা নিয়ে আসে। এরপর প্রাইভেটকারে করে ঢাকাসহ সারাদেশে মাদক কারবারিদের কাছে তা সরবরাহ করে।

তিনি জানান, জিজ্ঞাসাবাদে শাহনেওয়াজ জানায়, আগে সে চিংড়ি মাছের ব্যবসা করতো। সে এ পর্যন্ত ৫০টির বেশি ইয়াবার চালান নিয়ে ঢাকায় এসেছে। তার বিরুদ্ধে যাত্রাবাড়ী ও সূত্রাপুর থানায় একাধিক মাদক মামলা রয়েছে।

অপর আসামি মাসুদুর রহমান জানায়, উবারে গাড়ি চালানোর পাশাপাশি সে আড়ালে ইয়াবা সরবরাহের কাজ করে। সে ঢাকার মাদক কারবারিদের কাছে ইয়াবা সরবরাহ করে।

আর আসামি টিটু জানায়, রিকশা চালানো বাদ দিয়ে সে মাদক কারবারে জড়িত হয়। খুচরা মাদক কারবারিদের কাছে ইয়াবার ছোট ছোট চালান পৌঁছে দেওয়া তার কাজ। চালান প্রতি ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা পায়। আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা।

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন