ad

বাংলাদেশে ঘাঁটি থাকায় বিদ্রোহীদের সম্পূর্ণ দমন করা যাচ্ছে না: মিয়ানমার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::
আরাকান আর্মি এবং আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি নামের দুটি সংগঠনকেই সন্ত্রাসবাদী সংগঠন হিসেবে উল্লেখ করেছেন মিয়ানমার সরকারের মুখপাত্র জ হটাই। এসময় তিনি বলেন, আমরা বিদ্রোহীদের সম্পূর্ণ দমন করতে পারছি না। কারণ তাদের ঘাঁটি বাংলাদেশে।
অবশ্য হটাইয়ের এমন বক্তব্যকে অস্বীকার করেছে বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) কর্মকর্তারা। এর মধ্যে এক বিজিবি কর্মকর্তা মিয়ানমারকে তাদের দাবির পক্ষে প্রমাণ দিতে বলেন।

মঙ্গলবার ইকোনোমিক টাইমস প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়।
মিয়ানমার সরকারের মুখপাত্রের বরাত দিয়ে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, সোমবার মিয়ানমার পুলিশের ওপর আক্রমণ চালায় বিদ্রোহীরা। আর এ বিষয়টি নিয়েই মিয়ানমারের সেনাপ্রধান ও প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠক করেছেন দেশটির সরকার প্রধান অং সান সু চি। এসময় বিদ্রোহীদের ‘ধ্বংস’ করে দিতে বলেন তিনি।
এ বিষয়ে মিয়ানমার সরকারের মুখপাত্র জ হটাই জানান, আমরা পররাষ্ট্রনীতি এবং জাতীয় নিরাপত্তা নিয়ে আলাপ-আলোচনা করেছি। আসন্ন বছরগুলোতে রাখাইন রাজ্যে অস্থিরতা তৈরি করতে পারে আরাকান আর্মি। স্থানীয় লোকজন যেন তাদের সহায়তা না করে সে বিষয়ে সতর্ক করে দেয়া হয়েছে।
হটাই বলেন, তারা কী চায় কয়েক দশক ধরে এই সহিংসতা চলতে থাকুক? রাখাইনদের মধ্যে যারা বিদ্রোহীদের সমর্থন দিচ্ছে তাদের বলতে চাই, তোমরা তোমাদের পরবর্তী প্রজন্মের কথা ভাবো।

ad