প্রাকৃতিক উপায়ে মুখের দুর্গন্ধ দূর করার উপায়

লাইফস্টাইল ডেস্ক : ব্যক্তিত্ব ও সৌন্দর্যের অনেকখানিই নির্ভর করে মুখের স্বাস্থ্যগত অবস্থা তথা দুর্গন্ধমুক্ত মুখগহ্বরের ওপর। কিন্তু দুর্গন্ধ বা দুর্গন্ধযুক্ত শ্বাস অনেক সময়ই বিরক্তিকর সমস্যা হয়ে দাঁড়ায়। কেউ কেউ হয়তো এমন অবস্থা সম্পর্কে খুব একটা অবগত থাকেন না। অথচ মুখে গন্ধ তৈরি হয়, যা অ্যালকোহলমুক্ত প্রাকৃতিক উপায়ে দূর করা সম্ভব।

এ ক্ষেত্রে দারুচিনি ও লবঙ্গ অনেক দিন ধরেই ব্যবহৃত হচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা বলেন, এ ধরনের উপাদান কাজে লাগিয়ে প্রাকৃতিক মাউথওয়াশ তৈরি করা যায়, যা তৈরি করা সহজ। খরচও কম। জেনে নিন প্রাকৃতিক মাউথওয়াশ তৈরির পদ্ধতি:

দারুচিনি ও লবঙ্গ: এক কাপ বিশুদ্ধ পানি নিন। তাতে ১০ থেকে ১৫ ফোঁটা দারুচিনি ও লবঙ্গ তেল যুক্ত করুন। তারপর ভালো করে মেশান। এই মিশ্রণ আপনার মুখের দুর্গন্ধ তাড়াতে পারে। এ মাউথওয়াশ দীর্ঘদিন সংরক্ষণও করা যায়।

অ্যাপল সিডার ভিনেগার: দুই চা-চামচ অ্যাপল সিডার ভিনেগার এক কাপ লবণপানি ও ভ্যানিলা এসেনশিয়াল অয়েল একটি বাটিতে মেশান। এটি বোতলে রেখে দিতে পারেন। এ মিশ্রণ ব্যবহার করে নিয়মিত মুখগহ্বর পরিষ্কার করতে পারেন।

পিপারমিন্ট ও চা-পাতার তেল: এক কাপ পানিতে দুই চা-চামচ বেকিং সোডা, আট-নয়টি পিপারমিন্ট-পাতা ও দুই চামচ চা-পাতার তেল। উপাদানগুলো ভালো করে মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।

লবণপানি: যাঁরা বেশি ঝামেলায় যেতে চান না, তাঁরা হালকা গরম পানিতে এক চামচ লবণ মিশিয়ে তা কুলি করতে পারেন। এতে মুখের দুর্গন্ধ দূর হবে।

নিম: যাঁদের মাড়ি থেকে রক্ত বের হয় বা যাঁরা মুখের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া থেকে দূরে থাকতে চান, তাঁরা নিমের দাঁতন ব্যবহার করতে পারেন। বহুকাল আগে থেকেই মুখের সুরক্ষায় প্রাকৃতিক প্রতিষেধক হিসেবে নিম ব্যবহার হয়ে আসছে। নিম দাঁতের গোড়া শক্ত করে।

অন্যান্য: যাঁরা এ ধরনের মাউথওয়াশ ব্যবহার করতে চান না, তাঁরা চাইলে মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে জোয়ান চিবিয়ে দেখতে পারেন। জোয়ান ছাড়াও জিরা এ ক্ষেত্রে ভালো কাজে দেয়।