পায়েস খেলেন মীর কাসেম

mir-qasem-pic_120024-642x336_130663_130713_130725নিউজ ডেস্ক::

সবকিছু ঠিক থাকলে আর কিছুক্ষণের মধ্যেই কার্যকর হতে পারে মানবতাবিরোধী মীর কাসেম আলীর ফাঁসি। ফাঁসির দণ্ড কার্যকরের দিন আজ পায়েস, চিংড়ি মাছ, টাকি মাছের ভর্তা ও পোলাও খেয়েছেন তিনি। কারাগার সূত্র এই তথ্য জানায়।

বেলা ২টায় মীর কাসেম আলীকে খাবার দেওয়া হয়। খাবারের মধ্যে ছিলো- পোলাও, সাদা ভাত, রুটি, গরু, মুরগি ও খাসির মাংস। এছাড়া চিংড়ি মাছ, টাকি মাছের ভর্তা, পায়েস এবং মিষ্টি পরিবেশন করা হয়।

এসব খাবারের মধ্যে মীর কাসেম খেয়েছেন পোলাও, চিংড়ি মাছ ও টাকি মাছের ভর্তা। পরে সর্বশেষ পায়েস খান। এরপর মিষ্টি দেয়া হলে তিনি খেয়েছেন কি না তা নিশ্চিত করতে পারেনি সূত্র।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত কয়েদি হাফিজ উদ্দিন কারা কর্তৃপক্ষের নির্দেশে এসব খাবার পরিবেশন করেন। কয়েদি হাফিজ উদ্দিন মীর কাসেমের দেখাশোনায় নিয়োজিত ছিলেন।

খাবার থেয়ে মীর কাসেম বিশ্রামে যান। তবে ঘুমিয়েছিলেন কিনা তা জানা যায়নি। বিশ্রাম শেষে বিকেল ৪টায় তার পরিবার ও অত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে দেখা করেন। এটাই হয়তো স্বজনদের সঙ্গে তার শেষ দেখা।