‘নারী এবং নারীদেহকে সম্মান করতে শিখুন’

আলো আঁধারি ঘরে আবছা ছবি। মুখ দেখা যাচ্ছে না। বোঝা যাচ্ছে অন্তর্বাস পরিহিতা কোনও নারী। পরনে পোশাক ছাড়া শুধুই অন্তর্বাস। দেখা যাচ্ছে কাঁধের স্ট্রেচ মার্কসও। সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেই ছবিটি শেয়ার করেছেন ওই নারী।

জনপ্রিয় হিন্দি মেগা সিরিয়াল বড় বহু। ঐতিহ্যবাহী পোশাকে মাথায় ঘোমটা দিয়ে পুজার থালা হাতে নিয়ে দাঁড়িয়ে স্বয়ং বড় বউ। ঐতিহ্য সংস্কৃতি আর মূল্যবোধের বার্তাবাহক। কিন্তু একইসঙ্গে গুঁড়িয়ে দিতে চান সমাজের অচলায়তন। স্থুল হয়েও জয় করতে চান সবরকম বাধা।

দুই নারী একজনই। তিনি রিতাশা রাঠোড়। ভারতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী। উপরের ছবিটা রিয়েল লাইফ। নিচেরটা রিল লাইফ। বাধ্য হয়েই এই খোলামেলা ছবি শেয়ার করেছেন তরুণী। ইন্টারনেটের ট্রোলড হওয়ার জবাব দিতে।

বড় বহু সিরিয়ালে একটি সিকোয়েন্স ছিল। যেখানে কুস্তি করছেন রিতাশা। করতে গিয়ে তাঁর কামিজ ছিঁড়ে যায়। দেখা যায় অন্তর্বাস। সবাই রে রে করে ওঠে। কিন্তু পুত্রবধূর সমর্থনে এগিয়ে আসেন শ্বশুর শাশুড়ি।

সিরিয়ালের এই সিকোয়েন্স-এর ছবি পোস্ট করেছিলেন রিতাশা। সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়-কেন অন্তর্বাস বেরিয়ে যাবে? ট্রোল করা হয় রিতাশাকে।

তার উত্তরেই শুধু অন্তর্বাস পরা নিজের ছবি শেয়ার করেন রিতাশা। সঙ্গে লেখেন‚ ‘… হ্যাঁ‚ আমরা ব্রা পরি। এবং আমাদের স্তন আছে। সেখানে ম্যামারি গ্ল্যান্ড থাকে। নবজাতকের খাদ্য ও পুষ্টির একমাত্র উৎস। তাই‚ নারীদেহের সৌন্দর্যবৃদ্ধি ছাড়াও এর আরও গুরুত্বপূর্ণ দিক আছে। স্তনকে সাপোর্ট দিতেই ব্রা পরতে হয়। পোশাকের ভিতর থেকে ব্রা বেরিয়ে আসতেই পারে। তাতে লজ্জার কিছু নেই … নারী এবং নারীদেহকে সম্মান করতে শিখুন …’

(“…The latest drama on my show is that while wrestling Badho’s kameez tears from behind and her bra strap is exposed. All the forces of evil try to punish her, shame her – but she’s lucky enough to have very progressive onscreen in laws. This is what I love about my show. We’re pushing the envelope in these little ways. I’d love for more producers and actors to make content that our society needs. To tell stories that will help to uplift this entire country. To widen the narrow minds. To question the norm. To move ahead with the times. So her kameez tore and her bra strap was exposed. So what? Let’s normalise these things. No shame in it yaar. YES WE WEAR BRAS! And YES WE HAVE BREASTS. They contain mammary glands – essential in providing nutrition to new born infants. Other than being aesthetically pleasing they serve a very important function. And yes they sometimes need a bra to support them through the day. Bra straps will peek out of our blouses… and that’s okay. It’s not a shameful thing – don’t whisper it to me like I should be embarrassed…”

রিতাশার এই মোক্ষম জবাবে ইন্টারনেটে ট্রোল তো বন্ধ হয়েইছে। সেইসঙ্গে নেটিজেনদের বাহবাও কুড়িয়েছেন এই সাহসিনী। সূত্র: কালেরকন্ঠ।