ধর্মান্তরিত মুসলিমদের জন্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ

লিহ ডারল্যান্ড হানোশ: ইসলাম গ্রহণকারী নওমুসলিমদের জন্য পরামর্শ: আপনাকে প্রথমেই অন্যান্য ইসলাম ধর্ম গ্রহণকারীদের খুঁজে বের করতে হবে এবং তাদেরকে নিজের বন্ধু করে নিতে হবে। এর মানে এটা নয় যে, আপনি আপনার স্থানীয় মসজিদে যাওয়া বন্ধ করে দিবেন অথবা যেসকল ব্যক্তি জন্ম থেকেই মুসলিম তাদের সাথে মেশা এড়িয়ে চলবেন।

কিন্তু নতুন কারো জন্য সবচেয়ে ভালো হচ্ছে এমন কোনো ব্যক্তি বা দল খুঁজে নেয়া যারা আপনার সাথে নতুন কিছু ভাগাভাগি করে নিতে পারবে।

আপনার মুসলিম কমিউনিটির সাথে একাত্ম হোন
মানুষের একটি সহজাত প্রবণতা হচ্ছে সে নতুন কোনো দলের সাথে একাত্ম হতে প্রচেষ্টা চালায়। এ বিষয়টি আমাদের ভেতরে জৈবিকভাবেই তৈরি হয়। আমি জানি একটি মসজিদে যাওয়া এবং সকলের সাথে সহজে মিশতে পারা এবং একে অন্যকে জানতে পারার অনুভূতি কতটা আকর্ষণীয় হতে পারে।

আপনি যখন মুসলিম কমিউনিটির সাথে প্রথমে মিশতে চাইবেন তখন আপনার জন্য কিছু সাধারণ বিষয়ের দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। অনেকের নিকট এ বিষয়টি হয়ত অতোটা গুরুত্বপূর্ণ নয় কিন্তু একজন নও মুসলিমের জন্য এ বিষয়টি কিছুটা কষ্টকর হয়ে দাঁড়াতে পারে।

আপনি মুসলিম কমিউনিটির সকলকে সালাম দিন। আপনার লিঙ্গের সকলের সাথে করমর্দন করুন। তাদের সম্পর্কে জিজ্ঞেস করুন এবং তারা কেমন আছে তা জানতে চান।

সালাম হচ্ছে এমন একটি বিষয় যার মাধ্যমে আপনি তাদের কাছাকাছি পৌঁছাতে পারবেন এবং তারা হয়ত তখন আপনার সাথে আলোচনার জন্য আগ্রহ বোধ করবে।

সালামের পর ভদ্রভাবে আলোচনা শুরু করুন। তাদের উপস্থিতিকে বিবেচনা করুন এবং মাশাল্লাহ শব্দটি ব্যবহার করুন। সামাজিক হওয়ার জন্য আপনার দ্বার খুলে দিন।

মসজিদের নিয়ম কানুন মেনে চলুন। প্রথমবার মসজিদে প্রবেশ করে অবশ্যই আপনি এখানকার সব নিয়ম নীতি সম্পর্কে ওয়াকিবহাল থাকতে নাও পারেন এবং একজন নওমুসলিম হিসেবে আপনি স্বয়ংক্রিয় ভাবে তা জেনেও যাবেন না।

কমিউনিটির সাথে সংযুক্ত হোন। পশ্চিমা দেশ সমূহের মসজিদ সমূহ কমিউনিটি কেন্দ্রিক এগুলো শুধুমাত্র সালাত আদায় করার জন্য ব্যবহৃত হয় না।

সেখানে প্রতি সপ্তাহে বা প্রতি মাসে তরুণদের জন্য অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় এমনকি কোনো কোনো সময় রাতের খাবারের আয়োজন করা হয়।

একজন নওমুসলিম হিসেবে আপনার জন্য সবচেয়ে উত্তম হচ্ছে আরবি ভাষা শিক্ষা কেন্দ্রে ভর্তি হওয়া। বিশেষত যেখানে নও মুসলিমেরা ভাষা শিক্ষা নেন সেখানে সফর করুন। এর মাধ্যমে আপনি আপনার মতামত তুলে ধরতে পারবেন এবং সহজেই শিখে নিতে পারবেন।

হারিয়ে যাবেন না
মুসলিম কমিউনিটির সাথে সংযুক্ত হওয়া কষ্টসাধ্য ব্যাপার হতে পারে বিশেষত একজন নও মুসলিমের জন্য কেননা স্থানীয় মসজিদ সমূহের ৯৯ শতাংশ লোকজনের সংস্কৃতি নও মুসলিমের সংস্কৃতি থেকে ভিন্ন হয়।

আপনি হয়ত এ বিষয়টি দেখে হতাশ হয়ে যেতে পারেন তবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে আপনাকে চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে এবং আপনি অবশ্যই নিজেকে হারিয়ে ফেলবেন না।

নও মুসলিমগণ প্রায় সময় শুনে থাকেন যে, তাদের পূর্বের সংস্কৃতি ইসলামের সাথে যায় না এবং একজন মুসলিম হওয়ার জন্য অবশ্যই পশ্চিমা সংস্কৃতি ত্যাগ করা উচিত।

তবে সবসময় এ বিষয়টি সত্যি নাও হতে পারে। কিছু পশ্চিমা সংস্কৃতি যেমন, বিপরীত লিঙ্গের কারো সাথে ডেট করা, মদ পান করা ইত্যাদি অবশ্যই পরিত্যাগ করা উচিত। এছাড়া অন্যান্য অনেক বিষয় ইসলামের সাথে মিলে যায়।

আপনার নিজের মত কাউকে খুঁজে নিন

একজন ব্যক্তির ইসলাম গ্রহণের কাহিনী অন্যদের সাথে ভাগাভাগি করার মত মহান কাজ আর কি হতে পারে? আর এই গভীর বিষয়টি সকল নও মুসলিমদের জন্যই সাধারণ একটি বিষয়। আমার ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের প্রায় অধিকাংশই ধর্মান্তরিত মুসলিম।

একই ভাবে যারা ধর্মান্তরিত মুসলিমেরা যারা জন্মগত ভাবেই মুসলিম তাদের সংস্কৃতি সম্পর্কে বুঝতে ব্যাপক প্রচেষ্টা চালায়। আর এ বিষয়টি তাদের উপলব্ধির একটি সঠিক বিষয়।

মুসলিম উম্মাহ একটি অনন্য বৈচিত্র্যময় কমিউনিটি। তাদের সাথে একাত্ম হওয়া আসলেই সহজ একটি বিষয় কিন্তু এর পরেও ধর্মান্তরিত মুসলিম হিসেবে আপনার প্রয়োজন আরেক ধর্মান্তরিত মুসলিমকে খুঁজে বের করা।

আমি আশা করবো আপনি আমার উপদেশের মধ্যেই উত্তর খুঁজে পাবেন এবং মুসলিম কমিউনিটির সাথে সামাজিক ভাবে আরো ঘনিষ্ঠ হতে পারবেন।

আল্লাহ তায়ালাই সবচেয়ে ভালো জানেন। আমি আশা করবো আমার পরামর্শ কাজে আসবে।

সূত্র: এবাউটইসলাম ডট নেটে প্রকাশিত ইসলাম ধর্ম গ্রহণকারী একজন মুসলিমের কলাম থেকে।

ad