দেশে থাকলে তোমাদের অটোগ্রাফ নিতাম: শিক্ষার্থীদের সাকিব

ঢাকা: সারা দেশে অভূতপূর্ব সাড়া ফেলেছে নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের স্বতঃস্ফূর্ত আন্দোলন। গত ছয় দিন রাজপথে থেকে স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীরা যেভাবে শান্তিপূর্ণভাবে বিদ্যমান ট্রাফিক ব্যবস্থার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছে, তাতে একাত্মতা প্রকাশ করেছে দেশের সর্বস্তরের মানুষ। সরকারও তাদের দাবিকে যৌক্তিক মনে করে সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেগুলো একে একে পূরণ করার।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ খেলতে গেলেও এ আন্দোলনের ওপর চোখ আছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়দের। ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টি–টোয়েন্টি খেলার জন্য বাংলাদেশ এখন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায়। সেখান থেকে ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক।
শুক্রবার (০৩ আগস্ট) সন্ধ্যায় দেয়া ওই পোস্টে আন্দোলনকারীদের প্রশংসা করেন সাকিব। সফল আন্দোলনের পর সবাইকে ক্লাসে ফিরে যাওয়ারও অনুরোধও করেছেন তিনি।
সাকিব আল হাসান তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে বলেন, ‘আমি এখন ফ্লোরিডায় আছি। আজ এক গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে আমার তরুণ ফ্যানদের উদ্দেশ্যে কিছু বলতে চাই।

ad

গত ২৯ জুলাই রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে বাস চাপায় দুই স্কুল শিক্ষার্থী দিয়া ও আবদুল করিম নিহত হওয়ার ঘটনায় আমি প্রচণ্ড মর্মাহত ছিলাম। কিন্তু যখন দেখলাম তার সহপাঠী থেকে শুরু করে সারাদেশের ছাত্রছাত্রীরা দোষীদের শাস্তি দাবি ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলন শুরু করেছে, তখন গর্ববোধ করেছি বাংলাদেশের একজন নাগরিক হিসেবে। দেশে থাকলে আমিই তোমাদের অটোগ্রাফ নেয়ার জন্য চলে আসতাম। তোমাদের সাধুবাদ জানিয়ে বলতে চাই, তোমাদের দাবি কার্যকর হচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিহতদের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা ছাড়াও নিরাপদ সড়ক আইন করতে আন্তরিকভাবে কাজ করছেন। ইতোমধ্যে অভিযুক্ত পরিবহনের রুট পারমিট বাতিলসহ পাঁচ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ অবস্থায় তোমাদের কাছে বিনীত অনুরোধ করবো, ক্লাসে ফিরে পড়াশোনায় মনোনিবেশ করতে। তোমরা যা করেছ তা এদেশে ইতিহাস হয়ে থাকবে। এ অর্জন সফল হবে তোমাদের পড়ার টেবিলে ফিরে যাওয়ার মাধ্যমে। তোমাদের দাবি পূরণ হয়েছে এবং হচ্ছে। ব্যত্যয় ঘটলে আমাকে পাবে তোমাদের সাথে।’