দিল্লি ম্যাচে বমি করেছিলেন বাংলাদেশের দুই ক্রিকেটার

ভারতের বিপক্ষে দিল্লিতে সিরিজের প্রথম টি-টুয়েন্টি চলাকালীন বাংলাদেশের দুইজন ক্রিকেটার অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। ক্রিকইনফোর রিপোর্ট অনুযায়ী, ম্যাচ চলাকালীন বমিও করেন তারা। তাদের মধ্যে একজন সৌম্য সরকার। আরেকজনের পরিচয় জানা যায়নি।

খেলার আগেই আশঙ্কা ছিল দিল্লির দূষণে শ্বাসকষ্ট ও অন্যান্য শারীরিক অসুস্থতায় ভুগতে হতে পারে ক্রিকেটারদের। হলও সেটাই।

প্রথম টি-টুয়েন্টিতে সৌম্য সরকার অসুস্থ হয়ে পড়লেও দলের জয়ে তার বড় অবদান ছিল। ভারতের রান তাড়া করতে নেমে ৩৫ বলে ৩৯ রানের ইনিংস খেলেন এ বাঁহাতি। মারেন একটি বাউন্ডারি ও দু’টি ওভার বাউন্ডারি।

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে তীব্র মাত্রায় দূষণ থাকা সত্ত্বেও রোববার টি-টুয়েন্টি ম্যাচ খেলে বাংলাদেশ। ম্যাচে স্বাগতিক ভারতকে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারায় টাইগাররা।

বছরের এ সময়ে দূষণের জন্য প্রতিবারই নয়াদিল্লির বাতাস হয়ে ওঠে দূষিত। এবারও সেরকমই হয়েছে। দূষণের তীব্রতার কারণে ম্যাচটি অন্যত্র সরিয়ে নিতে সৌরভ গাঙ্গুলির কাছে আর্জি জানিয়েছিলেন পরিবেশবাদীরা। তবে একেবারে শেষমুহুর্তে ম্যাচ সরানো সম্ভব হচ্ছে না বলে জানিয়েছিলেন বিসিসিআই সভাপতি।

দু’বছর আগের ফিরোজ শাহ কোটলায় ২০১৯’র অরুণ জেটলি স্টেডিয়ামের মতো একই ছবি ছিল। সেবার কোটলায় অনুষ্ঠিত হয়েছিল ভারত-শ্রীলঙ্কা সিরিজের তৃতীয় টেস্ট। বায়ুদূষণের জন্য খেলা থামিয়ে দেয়া হয়েছিল। মাস্ক পরে খেলতে নেমেছিলেন লঙ্কানরা। কয়েকজন অসুস্থও হয়ে পড়েছিলেন। দুদলের একাধিক খেলোয়াড় বমি করেছিলেন।

দিওয়ালির পরে দিল্লিতে বায়ুদূষণ ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। বাধ্য হয়ে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত জরুরি অবস্থাও জারি করে সেখানকার রাজ্য সরকার। স্কুল, কলেজ বন্ধ করে দেয়া হয়। ধোঁয়াশার কারণে ৩০টির বেশি বিমান দিল্লি বিমানবন্দরে নামার বদলে অন্যত্র ঘুরিয়ে দেয়া হয়।

প্রথম ম্যাচে জয়ের সুবাদে তিন ম্যাচের টি-টুয়েন্টির সিরিজে ১-০তে এগিয়ে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ম্যাচ হবে ৭ নভেম্বর, রাজকোটে। তবে প্রথম ম্যাচে দূষণ ঝামেলার পর দ্বিতীয় টি-টুয়েন্টি আবার শঙ্কায় আছে সাইক্লোন মহার জন্য।

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন