টেকনাফে অশ্লীল নাচ-গান যেন ফ্যাশন

এম আমান উল্লাহ আমান::
টেকনাফে অশ্লীল নাচ-গান, জোয়া ও মাদক সেবন যেন ফ্যশনে পরিনত হয়েছে। বিশেষ দিবসকে সামনে রেখে অশ্লীল নাচ-গান, জোয়া ও মাদকের নিয়মিত আসর বসিয়ে ব্যবসা চালিয়ে আসছে একটি শক্তিশালী চক্র। মহান বিজয় দিবস, স্বাধীনতা দিবসসহ জাতীয় দিবস পালনের নাম করে চক্রটি ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট গঠণ করে অশ্লীল নাচ-গান, জোয়া ও মাদকের আসর বসিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে প্রচুর টাকা। ফলে একদিকে যেমন বাংলার ১৬ কোটি মানুষের অর্জন ও জাতীয় দিবসের প্রতি অবজ্ঞা অপরদিকে ইয়াবা সেবনের আসর ও প্রশিক্ষণের সু ব্যবস্থা। এ নিয়ে টেকনাফের বিজ্ঞজনদের মনে অসন্তোষ ও ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। তারা জাতীয় দিবস নিয়ে যারা ব্যবসা করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানান।
২৬ মার্চ বাঙালির শৃৃঙ্খল মুক্তির দিন। মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস। বিশ্বের বুকে লাল-সবুজের পতাকা ওড়ানোর দিন । ১৯৭১ সালের এদিনে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষিত হয়েছিল। ইতিহাসের পৃষ্ঠা রক্তে রাঙিয়ে, আত্মত্যাগের অতুলনীয় দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করে একাত্তরের এই দিনে যে সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল এ দেশের মানুষ, দীর্ঘ ৯ মাসের মুক্তিযুদ্ধে এক সাগর রক্তের বিনিময়ে স্বাধীনতা অর্জন তার চূড়ান্ত পরিণতি। রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের সূচনার সেই গৌরব ও অহঙ্কারের দিন ২৬ মার্চ ।
সে দিবসকে যথাযত গুরুত্ব সহকারে পালন ও অশ্লীলতা বর্জনের দাবীতে স্মারক লিপি প্রদান করেছেন টেকনাফের সাবরাং ওলামা পরিষদের নেতৃবন্দ। গতকাল টেকনাফ উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা বরাবরে তারা স্মারক লিপি পেশ করেন। সদয় অবগতি ও ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য মাননীয় সাংসদ উখিয়া-টেকনাফ, জেলা প্রশাসক ককসবাজার, চেয়ারম্যান টেকনাফ উপজেলা পরিষদ, অফিসার ইনচার্জ টেকনাফ মডেল থানা, চেয়ারম্যান সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদ ও ৪নং ওয়ার্ড মেম্বার সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদ,টেকনাফ কে অনুলিপি প্রদান করেছেন।
সাবরাং ওলামা পরিষদের সভাপতি মাও. হোসাইন আহমদ বলেন মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসকে আমরাও শ্রদ্ধাকরি, স্বাধীনতা অর্জনের গুরুত্বপূর্ণ বিষয় গুলো আগামী প্রজম্মের জন্য উপস্থাপন না করে অশ্লীল নাচ-গান, জোয়া ও মাদকের নিয়মিত আসর জমানো কোনোভাবে সহ্য করা যায়না। তিনি আরো বলেন মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালনে আমরাও সাথে থাকব, সে সুযোগকে কাজে লাগিয়ে অশ্লীল নাচ-গান, জোয়া ও মাদকের আসর বসালে আমরা তার বিরুদ্ধে জুরালো প্রতিবাদ গড়ে তোলব।
সাবরাং ওলামা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ তৈয়ুব বলেন ২৬ মার্চ সন্ধ্যায় সাবরাং স্কুল মাঠে অশ্লীল নাচ-গান, জোয়া ও মাদকের জমজমাট আয়োজনের প্রস্তুতির সংবাদ আমরা পেয়েছি, এ ব্যাপারে প্রশাসন বরাবরে স্মারক লিপি প্রদান করা হয়েছে।