ad

ছুঁতে শুরু করেছে শীত!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট::
ছুঁতে শুরু করেছে শীত। শীতের আগমনের শুরুতেই সকাল বেলা ঘুম থেকে উঠেই মানুষের শরীরে স্পর্শ করছে ঠাণ্ডা হিমেল বাতাস। শীত মানেই নগরবাসীসহ সবার স্বস্তি। একটু ঠাণ্ডাই ভুলিয়ে দিচ্ছে কিছু দিন আগের চরম তাপদহের ভোগান্তির কথা। বর্তমানে মানুষ চারদিকে অনুভব করছে স্বস্তির এক ঠাণ্ডা।

সামান্য শীতের আগমনীতেই নগরীর বিভিন্ন অলিগলিতে দেখা যায় শিশুদের খেলার মেলা। শীতের সাথে যোগ আজ (৩০ অক্টোবর) সকালে যোগ হয়েছিল হালকা বৃষ্টি। শীতের আগমেন ফুরফুরে মনটা অনেক কিছুই চায়। তবে নগরীর জীবন মানেই বাস্তবতা। তাই চাইলেও সবকিছু করা যায় না। অনেকটা বাধ্য হয়েই যেতে হয় কর্মস্থলে।

ঘরের জানালা দিয়ে হাত বাড়িয়ে শীতের সকালের ঝিরিঝিরি বৃষ্টি অনুভব করে মেয়েরা। শীতের আগমনে আলমারি থেকে বের করা হচ্ছে অনেক দিনের জমা থাকা গরম পোশাক। শীতে ভালো লাগে পছন্দের মানুষের সাথে রিকশায় ঘুরতে।

আকাশের দিকে তাকালে দেখা যায় পাখিদের মিলন মেলা। সকাল থেকেই শুরু হয় পাখিদের কিচিমিচি শব্দ। শত শত কবুতর যেন বাঁধ ভাঙ্গা খুশি নিয়ে আপন মনে আকাশে উড়ছে। বহিরাগত দেশ থেকে ঝাকে ঝাকে অতিথিতি পাখি আসতে শুরু করেছে নদী নালার পারে। সবুজ শ্যামল রাজধানী না হলেও, সবুজ শ্যামল গ্রাম আছে আমাদের জন্মভূমিতে। শীতের সকালে বাড়ি বাড়ি মজাদার পিঠার সুঘন্ধে ঘুম ভাঙ্গার আনন্দ পৃথিবীর আর কোথাও খুঁজে পাওয়া যায় না। চাঁদর গায়ে দিয়ে সকালে বাড়ি বাড়ি স্বজনদের নিয়ে এক সাথে গল্প করে পিঠা খাওয়ার স্বাদ সবার হৃদয়কে ছুঁয়ে যায়।

ভোরের কুয়াশাছন্ন ঠাণ্ডা বাতাস হিমহিম করে গায়ে লাগার অনুভব করছে দেশের সব স্থানের মানুষ। শিশির ভেজা ঘাস, ধান সব কিছু যেন চিকচিক করছে হালকা রোদের আলোতে। মাকড়সার জালে শিশিরের বিন্দু দেখলে চোখ জুড়ে যায়। এতো সব ভালো লাগার ছোঁয়া অনুভব করা যায় এই শীতের সময়ই।

ad