চট্টগ্রামে জঙ্গি সন্দেহে গ্রেফতার এনজিও কর্মকার্তসহ ৭ যুবক রিমান্ডে

নিউজ ডেস্ক::

চট্টগ্রামে জঙ্গি সন্দেহে গ্রেফতার আন্তর্জাতিক রেডক্রসের এক কর্মীসহ সাতজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুই দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। সোমবার চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম আল ইমরান খানের আদালত শুনানি শেষে এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ সাত দিন করে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেছিল।

রিমান্ড মঞ্জুর হওয়া আসামিরা হলেন- মো. মহিউদ্দিন তামিম, মো. আজফার হোসেন, মো. ইমরান খান, মো. দাউদ নবী পলাশ, চৌধুরী মোহাম্মদ রিদওয়ান, এসএম জাওয়াদ জাফর ও মো. মুনতাসিরুল মেহের।

চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (প্রসিকিউশন) নির্মলেন্দু বিকাশ চত্রক্রবর্তী সমকালকে বলেন, জঙ্গি সন্দেহে গ্রেফতার সাত আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ দিন করে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করলে শুনানি শেষে আদালত ২ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে গত শনিবার ভোর রাতে নগরের কোতোয়ালী থানার পুরাতন বিমান অফিসের পাশে আনন্দবাগ আবাসিক এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে র‌্যাব। তারা আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন আইএস’র সমর্থক বলে দাবি র‌্যাবের। তাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ জিহাদী ও উস্কানিমূলক বই এবং ল্যাপটপ উদ্ধার করা হয়েছে।

আসামিদের মধ্যে মুনতাসিরুল মেহের কক্সবাজারে ইন্টারন্যাশনাল কমিটি অব দি রেডক্রসের (আইসিআরসি) ফিল্ড অফিসার হিসেবে কর্মরত। এস এম জাওয়াদ জাফর চট্টগ্রাম ইপিজেডের ইয়ং ওয়ান পোশাক কারখানায় কর্মরত। মো. দাউদ নবী পলাশ প্রিমিয়ার সিমেন্টে সহকারী প্রকৌশলী হিসেবে কর্মরত। চৌধুরী মোহম্মদ রিদওয়ান ২০১৩ সালে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার হন। মো. ইমরান খান উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে বিবিএ কোর্সের শিক্ষার্থী। আজফার হোসেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মানব সম্পদ বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। মহিউদ্দিন তামিম প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে স্নাতক পাশ করেছেন।