কলকাতা ছাড়া পূজা ভাবতেই পারি না: জয়া আহসান

দুই বাংলার ব্যস্ত ও জনপ্রিয় তারকা জয়া আহসান যেন লম্বা ইনিংস খেলতে মাঠে নেমেছেন। ২০১৭ থেকে প্রত্যেক ছবিতে বক্স অফিসের সাফল্যকে সুনিশ্চিত করেছেন তিনি। তার অভিনীত মুক্তি পাওয়া সর্বশেষ সিনেমা ‘দেবী’, ‘বিজয়া’, ‘কণ্ঠ’— তিনটিই সুপারহিট বক্স অফিসে। শুধু এ বছরই নয়। ইতিমধ্যেই জয়া সাজিয়ে নিয়েছেন পরের বছরের বাছাই করা ছবির লম্বা তালিকা।

|
সামনেই দুর্গা পূজা। আর এটাকে সামনে রেখেই পূজার সাজে সেজে উঠলেন এই অভিনেত্রী। এই বিষয়ে ভারতীয় গণমাধ্যমে জয়া বলেন, ‘গেল কয়েক বছর ধরে আমার কাছে পূজার আনন্দ মানে ছবি রিলিজ করা। কলকাতার সৃজিত মুখার্জির যে কটি ছবি আমি করেছি সেগুলো পূজাতেই মুক্তি পেয়েছে। বড় হওয়ার পর তাই এটাই আমার কাছে পূজার মূল আকর্ষণ।’


এবার পূজা কেমন কাটবে জানেন না জয়া। বললেন, আমার অক্টোবরে কলকাতা যাওয়ার কথা। তার একটু আগেই যেতে চাই যেন অন্তত পূজার আমেজটা বুঝতে পারি। কলকাতা ছাড়া পূজা ভাবতেই পারিনা। এখানেও পূজা হবে। তবে ঠাকুর দেখতে যেতে পারবো কিনা জানিনা। আমাদের সবচেয়ে বড় পূজা হয় বনানীর মণ্ডপে। প্রচুর লোকজন আসেন সেখানে। তবে এ বার তা কতটা হবে জানিনা। হয় তো সোশ্যাল মিডিয়াতে ঠাকুর দেখতে হবে।

পূজার লুকে সাবেকি সাজ পছন্দ জয়ার। তাই ঘাগড়া আর শাড়িতে রঙিন হয়ে উঠলেন জয়া। রঙের মধ্যেও নতুন ভাবনা এনেছেন অভিনেত্রী। সম্পূর্ণ সাদা, পিচ, হাল্কা কমলা জয়ার পছন্দের রং। ঘাগড়ায় ঘন ফুলেল কাজের বাহারে সেজে উঠলেও, শাড়ির ক্ষেত্রে গ্রে বা সাদা রঙে বর্ণিল হয়ে উঠেছেন জয়া।

অতনু ঘোষের ‘বিনি সুতো’, ‘রবিবার’ জয়ার ক্যারিয়ারে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ছবি। এই প্রথম ‘বিনিসুতো’-য় ঋত্বিক চক্রবর্তী। অন্য দিকে, কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের মতো হেভিওয়েট পরিচালকের ‘অর্ধাঙ্গিনী’-তে একেবারে ভিন্ন মেজাজে দেখা যাবে জয়াকে।

লকডাউনের মধ্যেই জানা গিয়েছে, শিলাদিত্য মৌলিকের নতুন ছবি ‘ছেলেধরা’-র কেন্দ্রীয় ভূমিকায় থাকবেন জয়া। ‘ছেলেধরা’-তে উঠে আসবে এক জন অ্যালকোহলিক মা ও মেয়েকে অপহরণের গল্প।

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন