এমপি বদির বিরুদ্ধে প্রাণনাশের হুমকিতে শাহজাহান চৌধুরীর অভিযোগ দায়ের

ডেস্ক রিপোর্ট::
কক্সবাজারের সীমান্তবর্তী এলাকা উখিয়া-টেকনাফ সংসদীয় আসনে উত্তপ্ত পরিস্থিতি বিরাজ করছে। গত শুক্রবার একদিনেই সংঘটিত দু’টি ঘটনা নিয়ে সীমান্ত উপজেলা টেকনাফের নির্বাচনী পরিস্থিতি অশান্ত হতে শুরু করে। ঘটনার জের ধরে শনিবার এমপি আবদুর রহমান বদি এক প্রতিবাদ সভায় প্রতিপক্ষ বিএনপি মনোনীত প্রার্থী শাহজাহান চৌধুরীর উদ্দেশ্যে হুংকার ছেড়েছেন। প্রকাশ্যে জনসভায় এমপি বদির এরকম হুংকারে এলাকায় আতংক বিরাজ করছে। এমনকি ভয়ে টেকনাফের বিএনপি সমর্থক পরিবারের লোকজন এলাকা ছেড়ে যাচ্ছেন বলেও জানা গেছে।
এদিকে এমপি আবদুর রহমান বদি প্রতিপক্ষ বিএনপি মনোনীত প্রার্থী শাহজাহান চৌধুরীকে প্রাণ নাশের হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। বিএনপি প্রার্থী এবং কক্সবাজার জেলা বিএনপি’র সভাপতি শাহজাহান চৌধুরী গতকাল রবিবার কক্সবাজারের রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসকের নিকট এক লিখিত অভিযোগনামা দায়ের করেছেন। শাহজাহান চৌধুরী তাতে উল্লেখ করেন যে, তিনি কক্সবাজার-৪ (উখিয়া-টেকনাফ) আসনে চার বার এমপি ছিলেন।
বিএনপি’র মনোনীত এমপি পদপ্রার্থী শাহাজাহান চৌধুরী বলেন-‘এমপি আবদুর রহমান বদি কোন প্রার্থী না হয়েও তার স্ত্রীর পক্ষে গত শনিবার নির্বাচনী জনসভায় আমার গাড়ি ভাংচুর করবে, আমাকে টেকনাফ যেতে দিবেনা এমনকি আমার প্রাণনাশ করবে বলে হুমকি দিয়েছেন।’
শাহজাহান চৌধুরী আরো বলেন, এমপি বদি উক্ত জনসভায় তার স্ত্রীকে যারা ভোট দিবেনা তাদের নাম-ঠিকানা তার নিকট জমা দিতে নির্দ্দেশ দিয়েছেন। এমপি বদি এলাকায় এভাবে এক ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছেন। এমন এক ভয়াল পরিস্থিতিতে লোকজন নির্বাচনী এলাকায় যেতেও সাহস পাচ্ছে না। ফলে এলাকায় নির্বাচনী
প্রচারণার আমেজের পরিবর্তে বিরাজ করছে চরম আতংক-জানান বিএনপি প্রার্থী শাহজাহান চৌধুরী।
অপরদিকে এমপি আবদুর রহমান বদি উখিয়া উপজেলা সদরে তার গাড়িতে ‘গুলি’ বর্ষণের প্রতিবাদে আয়োজিত সভায় প্রতিপক্ষ বিএনপি প্রার্থী শাহজাহান চৌধুরীকে হুমকি-ধমকি দিয়ে যে বক্তব্য দিয়েছেন তার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। ভিডিওটি ‘বিএনপি নিউজ উখিয়া-টেকনাফ’ ফেইজবুক আইডিতে গত রাত ১১টা পর্যন্ত ১ লাখ ৪৩ হাজার ভিউজ ভাইরাল হয়, এতে লাইক দেওয়া ৯৪৭, শেয়ার হয় ৪হাজার ২শত এবং মন্তব্য ৩৩৪জন ফেইজবুক ব্যবহারকারি। প্রায় সাড়ে চার মিনিটের ভিডিওটি জনমনে দারণভাবে বিরুপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
উক্ত ভিডিও’র বক্তব্যে প্রতিপক্ষ বিগত চারবারের এমপি এবং বয়োজ্যেষ্ট রাজনীতিক শাহজাহান চৌধুরীকে এমপি বদি ‘তুই-তামারি’ করে সম্বোধন করতে শুনা যায়। সেই সাথে এমপি বদির স্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের মনোনীত এমপি প্রার্থী শাহিন আক্তার সহ তার পরিবার নিয়ে অহমিকাকে লোকজন ভালভাবে নেয়নি। এমনকি আগামী ৩০ ডিসেম্বর এমপি প্রার্থী শাহজাহান চৌধুরীকে এমপি বদি বৈদ্যালী দেখাবেন বলে যে হুংকার দিয়েছেন তা নিয়েও জনমনে নেতিবাচক বক্তব্য হিসাবে দেখা দিয়েছে।
অথচ কক্সবাজার-৪ (উখিয়া-টেকনাফ) সংসদীয় আসনে ভোট যুদ্ধে মাঠ সরব হয়ে উঠেছিল আওয়ামী লীগ ও বিএনপি’র মধ্যে। বড় দুই দলের মনোনীত দলীয় প্রার্থীরা ইতোমধ্যে বিভিন্ন স্থানে ভোটারদের সাথে কৌশল বিনিময় ও গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছিলেন। কিন্তু এমপি বদির লাগামহীন বক্তব্যে সরকারি দলের ভাবমুর্তিও এখন পড়েছে প্রশ্নের মুখে। এমপি বদির এরকম বক্তব্য নিয়ে দলের লোকজনও এক প্রকার অসন্তুষ্ট।
ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের বর্তমান সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদির বিরুদ্ধে ইয়াবা তালিকায় নাম থাকায় এবং দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)’র দ- প্রাপ্তসহ নানা কর্মকান্ডে দেশব্যাপী সমালোচিত হওয়ায় দলের পক্ষ থেকে তাকে এবার মনোনয়ন দেয়া হয়নি। তার পরিবর্তে নৌকার টিকিট পেয়েছেন বদির স্ত্রী শাহীন আক্তার চৌধুরী। উখিয়ার একটি সম্ভ্রান্ত রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান হলেও বদির স্ত্রী হওয়ায় দলের একটি পক্ষ বরাবরই তার পক্ষে নিরব রয়েছেন।
আওয়ামী লীগ সরকারের বিগত দশ বছরের শামনামলে উখিয়া-টেকনাফে অভূতপূর্ব উন্নয়ন কর্মকান্ড হয়েছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ সরকার দশ বছরে যে পরিমাণ উন্নয়ন এ জনপদে হয়েছে বিগত যেকোন সময়ে তা হয়নি বলেও মন্তব্য করেন সাধারণ ভোটাররা। সে হিসেবে ভোটাররা এবারও দল, মত ও ব্যক্তি স্বার্থের উর্ধ্বে শেখ হাসিনাকে বিজয়ী করতে নৌকায় ভোট দেবে বলে জানিয়েছেন।
এদিকে উখিয়া টেকনাফের নতুনসহ সাধারণ ভোটারদের ভোটে এবারও নৌকার জয়ের সম্ভাবনা বেশি। তবে নির্বাচনী মাঠে বর্তমান সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদির বেশ কিছু কর্মকা-ে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হওয়ার পাশাপাশি এনিয়ে দলের নেতাকর্মীরাও বিব্রতবোধ করছেন।
গত শনিবার উখিয়ায় তার দম্ভোক্তিমূলক বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছে বলে মনে করছেন দলীয় লোকজন। তিনি বিএনপির বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীদৈর হুমকি ধমকি দিচ্ছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া তিনি টেকনাফ থানা পুলিশের ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে ব্যবহার করে প্রতিপক্ষের নেতাকর্মীদের বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করছেন বলেও বিএনপি নেতৃবৃন্দ অভিযোগ তুলেছেন।।
এ বিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের এক জ্যেষ্ট নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘ ভোটে নৌকা জিতবে তাতে কোন সন্দিহান নেই। শেখ হাসিনা সরকার যে হারে উন্নয়ন করেছেন তাতে সাধারণ মানুষ আবারও শেখ হাসিনার নৌকাকে বিজয়ী করবে। বদি বা তার স্ত্রীকে দেখে নয়, এ আসনের জনগণ নৌকা দেখে ভোট দেবে। নৌকার বিজয় কেউ ঠেকাতে পারবেনা। তবে, উন্নয়নের প্রতীক নৌকার গণজোয়ারের মাঝেও বর্তমান সংসদ সদস্য বদির বেশ কিছু কর্মকান্ড বিতর্ক বাড়াচ্ছে।’
তিনি বলেন, ‘নৌকার জয়ের সম্ভাবনা যেখানে প্রখর, সেখানে প্রতিপক্ষের লোকজনকে হুমকি , ধমকি দিয়ে বা পুলিশকে ব্যবহার করে ভোট আদায় করার দরকার আছে বলে মনে করছিনা। বরং বদির এসব কর্মকান্ডে একদিকে দল যেমন বিতর্কিত ও প্রশ্নবিদ্ধ হবে তেমনি তার কর্মকা-ে নির্বাচন কমিশনও বিব্রতবোধ করতে পারেন। তাতে দলের ভাবমূর্তিও নষ্ট হবে।’ সুত্র: দিসিএম