এমপি কমলের ‘ওসমান ভবনে’ অনন্য বিয়ের আয়োজন

সোয়েব সাঈদ, রামু:
ঘরের অতিথিশালায় সাজানো মঞ্চে বসে আছে কনে। বাড়ির আঙিনায় নির্মিত হয়েছে সামিয়ানা। সেখানে চলছে কণে আর বর পক্ষের মেহমানদের খাওয়া দাওয়া। অন্দর মহলে চলছে মেহমানদের কুশল বিনিময়। ছেলে-মেয়েরা মেতেছে আনন্দ-ফূর্তিতে। পুরো বাড়ি যেন উৎসবে একাকার। ভিন্ন এক আয়োজনে মুখরিত সবাই।

নিজ এলাকার দরিদ্র পরিবারের এক মেয়ের বিয়ের আসরকে ঘিরে সোমবার (১৪ মে) আনন্দ আয়োজনে ভরে উঠে কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমলের বাড়ি ওসমান ভবন। ব্যতিক্রমী এ বিয়ের আয়োজন নিয়ে কণের পরিবার-পরিজন যেমন উল্লসিত তেমনি এ আনন্দে একাকার হয়েছেন প্রতিবেশীরাও।

রামুর মন্ডলপাড়া গ্রামে নির্মিত সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমলের বাড়িটি নির্মিত হয়েছে পুরনো আদলে। বাড়িতে ভিতের বিশাল অতিথিশালা আর কক্ষগুলোতে থাকা সোফা ও চেয়ারে বসেন শতাধিক অতিথি। শুধু সাজানো হয় কণের মঞ্চ। কণে এবং বর পক্ষের অতিথিদের বরণ করার পর সাংসদ কমল নিজেই অতিথিদের সাথে আপ্যায়নে অংশ নেন।

জানা গেছে, বিয়ের কণে রামুর মন্ডলপাড়া গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের মেয়ে আফসানা মিম এবং বর উখিয়া উপজেলার মরিচ্যা গ্রামের সেলিম সওদাগরের ছেলে ওসমান সরওয়ার।

ad

সাংসদ কমলের ব্যক্তিগত সহকারি স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা আবু বক্কর ছিদ্দিক জানালেন, ইতিপূর্বে ওসমান ভবনে আরো কয়েকটি বিয়ের আসর, গায়ে হলুদ, কুলখানি, মেজবানসহ বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়েছিলো। এসব এমপি কমলের মানবিক প্রচেষ্টারই অংশ। এ ভবনে এধরনের অনুষ্ঠান আয়োজনে কোন অর্থও দিতে হয় না। এছাড়া এ ভবনে চার বছর ধরে পবিত্র রমজান মাসে প্রতিবেশী ও দূরান্তের মহিলাদের জন্য জামাতে খতমে তারাবীহ নামাজ পড়ানো হচ্ছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল বলেন, এখানে বিয়ের উৎসব চলছে। এটা যাদের জন্য আয়োজন তাদের কেমন লাগছে জানিনা। কিন্তু নিজের জন্য এরচেয়ে আনন্দের আর কিছুই হতে পারে না। আমার এ ভবন সবার জন্য উন্মুক্ত। তিনি আরো জানান, ওসমান ভবনে কক্সবাজার-রামুর নব দম্পতিদের জন্য লাক্সারিয়াস কক্ষ রয়েছে। নব দম্পতিরা চাইলে এখানে আতিথেয়তা গ্রহন করে বিনামূল্যে থাকা-খাওয়ার সুযোগ পাবেন।