এনজিও কর্মকর্তার সঙ্গে প্রবাসীর স্ত্রীর ছবি ভাইরাল

শরীয়তপুরের নড়িয়ায় ইতালি প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে স্থানীয় এক এনজিওর এরিয়া ম্যানেজারের অন্তরঙ্গ ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। বিষয়টি নিয়ে উপজেলায় তোলপাড় চলছে।

ওই প্রবাসীর স্ত্রীর বাড়ি নড়িয়া উপজেলার ডিঙ্গামানিক ইউনিয়নের সালধ এলাকায়। আর ওই ব্যক্তির নাম মনির হোসেন সরদার। তিনি নড়িয়া উন্নয়ন সমিতি (নুসা) এনজিওর এরিয়া ম্যানেজার।

মনির হোসেন নড়িয়া পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের প্রেমতলা গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক সরদারের ছেলে বলে নিশ্চিত করেছেন নুসার উপ-পরিচালক জয়দেব কুন্ড।

বুধবার (৭ এপ্রিল) দুপুর ১২টার দিকে ‘নড়িয়ার রাজনীতি’ নামের একটি ফেসবুক আইডিতে প্রথম এ ছবিগুলো পোস্ট করা হয়। পরে ফেসবুকের বিভিন্ন আইডিতে ছড়িয়ে পড়ে।

ছবির বিষয়ে জানতে চাইলে এনজিও কর্মকর্তা মনির হোসেন সরদারের সঙ্গে তার ‘ভাই-বোনের’ সম্পর্ক বলে দাবি করেন প্রবাসীর ওই স্ত্রী। তিনি বলেন, ‘মনির ভাইয়ের সঙ্গে আমাদের পরিবারের দীর্ঘদিন যাবত সম্পর্ক। তার সঙ্গে আমার পরিবারের অনেক ছবি আছে। “নড়িয়ার রাজনীতি” ফেসবুক আইডিতে কারা যেন কম্পিউটারে ছবি এডিট করেছে। আমরা এ বিষয়ে মামলা করব।’

poro

মনির হোসেন সরদার বলেন, ‘আমাদের দুই পরিবারের মধ্যে পারিবারিকভাবে সম্পর্ক আছে। কিন্তু প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে আমার কোনো অনৈতিক সম্পর্ক নেই। আমার মানহানি করার জন্য কে বা কারা একটি ফেক আইডিতে দুজনের ছবি এডিট করে ষড়যন্ত্র করেছে।’

নড়িয়া উন্নয়ন সমিতির উপ-পরিচালক জয়দেব কুন্ড বলেন, ‘মনির আমাদের এনজিওতে এরিয়া ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত আছেন। নড়িয়া, ভোজেশ্বর, ঘড়িসার, কার্তিকপুর, ডগরী ও নওপাড়া এই ছয়টি ব্রাঞ্চ দেখাশোনা করেন। বিষয়টি আমি জেনেছি। ওই ঘটনায় তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।’

নড়িয়া উন্নয়ন সমিতির নির্বাহী পরিচালক মাজেদা শওকত আলী বলেন, ‘মনির আমার সন্তান না, আমার কর্মী। বিষয়টি আমি তদন্ত করব।’

এ ব্যাপারে নড়িয়া থানার ওসি (তদন্ত) প্রবীণ চক্রবর্তী বলেন, ফেসবুকে আপত্তিকর ছবি ভাইরাল বিষয়ে কেউ এখনো অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ দিলে ব‍্যবস্থা নেব।

Loading...
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন