উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে হেরেও ফাইনালে লিভারপুল

দীর্ঘ ১৩ বছর পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল নিশ্চিত করেছে ইংলিশ জায়ান্ট লিভারপুল। ইতালীয় ক্লাব রোমাকে দুই লেগ মিলিয়ে ৭-৬ গোলের ব্যবধানে হারিয়েছে অল রেডদের। যদিও ইতালির রাজধানী রোমের অলিম্পিক স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে ৪-২ গোলের পরাজয়ের স্বাদ নিতে হয়েছে অতিথিদের।

প্রথম লেগে ৫-২ গোলে পিছিয়ে থাকা রোমা বুুুধবার রাতে বেশ আক্রমণাত্মক শুরু করেছিলো। তবে ম্যাচের ৮ মিনিটেই রোমার ঘরের মাঠ অলিম্পিক স্টেডিয়ামের দর্শকদের স্তব্ধ করে দিয়ে লিভারপুলকে এগিয়ে নেন সাদিও মানে। এরপর ১৪ মিনিটের লিভারপুলের আত্মঘাতী গোলে খেলায় ফিরে রোমা। স্বাগতিক দলের স্ট্রাইকার এল শারাউয়ির গোলমুখী শট ফিরিয়ে দেন লিভারপুলের ডিফেন্ডার লভরেন। কিন্তু সেই বল মিলনারের মুখে লেগে চলে যায় লিভারপুলের নিজেরই জালে।

তবে ম্যাচের ২৪ মিনিটে রোমাকে হতাশায় পুড়িয়ে ২-১ গোলে লিভারপুলকে এগিয়ে নেন মিডফিল্ডার গিনি ভাইনাল্ডাম।

দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচে ফিরতে রোমার জন্য সমীকরণ দাঁড়ায় অন্তত চার গোল করলে ম্যাচ গড়াবে অতিরিক্ত সময়ে। এমন কঠিন চ্যালেঞ্জ সামনে রেখে ৫১ মিনিটে এডিন জেকো গোল করে দলকে এনে দেন ২-২ সমতা। লিভারপুল তখন রক্ষণাত্মক খেলতে থাকে। তবে ম্যাচের ৮৫ মিনিটে আলেকজান্দার কোলারভের গোলে আশা ফিরে আসে রোমার শিবিরে। ম্যাচে তখন ৩-২ গোলে এগিয়ে রোমানরা।

ad

তবে যোগ করা সময়ে পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়ে ম্যাচে নাটকীয়তা নিয়ে আসেন রেফারি। ম্যাচ তখন ৯৩ মিনিটে, এমন সময় লিভারপুলের পেনাল্টি বক্সের ভিতরে ডিফেন্ডার রাগনার ক্লাভানের হাতে বল আলতো করে ছুঁয়ে গেলে পেনাল্টি পায় রোমা। নাইঙ্গোলান সেখান থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন ৪-২ গোলে।

তবে এরপর শেষ বাঁশি বেজে উঠলে ম্যাচে হেরেও উদযাপনে মেতে ওঠে লিভারপুলের খেলোয়াড়রা। আর দুই লেগ মিলিয়ে ৭-৬ গোলের ব্যবধানে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালের খুব কাছে এসেও ফিরে যেতে হয় রোমাকে।

আগামী ২৬ মে কিয়েভে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদের মোকাবেলা করবে লিভারপুল।