উখিয়ায় ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ !

৭ বছরের শিশুকে মসজিদের ভিতর ধর্ষণ করেছে মসজিদের মোয়াজ্জিন। এমন লোমহর্ষক ঘটনা ঘটেছে কক্সবাজারের উখিয়ার রাজাপালং ইউনিয়নের ডেইলপাড়া মসজিদে।ধর্ষিতার চাচার ফরিদ আলম জানান, ১১ জুলাই দুপুর ১২ টার দিকে স্থানীয় ডেইল পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ঘরে আসার পথে দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে মসজিদ ঝাড়– দেয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে যান ডেইলপাড়া মসজিদের মোয়াজ্জিন হাফেজ নুরুল আমিন। মসজিদের ভিতর ঢুকিয়ে ৭ বছরের শিশুটিকে ধর্ষণ করে। পরে মেয়েটি রক্তাক্ত অবস্থায় কান্না করতে করতে ঘরে এসে মাকে সব খুলে বলে। এই ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর ধর্ষক স্থানীয় মেম্বারের মাধ্যমে সমঝোতার চেষ্টা করেন। এমন কি বিচারে এক লাখ টাকা দেয়ার জন্যও রাজি ছিলেন ধর্ষক। কিন্তু ধর্ষকের পরিবার না মানায় তা স্থানীয়ভাবে সমঝোতার বৈঠক হয়নি। ধর্ষকের পরিবার এই ঘটনায় পুলিশকে অভিযোগ করেছেন।

স্থানীয় রাজাপালং ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের মেম্বার আবদুর রহীম জানান, ধর্ষণের ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। এই ঘটনায় শালিশী বৈঠকের জন্য বলা হলে আমি নাখোজ করে দিই। এই ঘটনায় আমি কোন প্রকার বিচার শালিসে বসেনি।

উখিয়া থানা ওসি (তদন্ত) নুরুল ইসলাম মজুমদার জানান, শিশু ধর্ষণের খবর পেয়ে অভিযুক্ত ধর্ষককে ধরতে অভিযান চালানো হয়। কিন্তু ধর্ষক পালিয়ে যাওয়ায় আটক করা সম্ভব হয়নি।

এদিকে জানা যায়, নিরহ ও গরীব ধর্ষিতার পরিবারের মা বাবাকে ম্যানেজ করতে ধর্ষকের পরিবার বড় অংকের টাকা দেয়ার লোভ দেখাচ্ছে। টাকা নিয়ে ম্যানেজ না হলে নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে ধষির্তার পরিবারকে।

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন