উখিয়ায় রোহিঙ্গা নারীর হামলায় স্থানীয় নারী আহত

উখিয়া নিউজ ডেস্ক::
কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা নারীর হামলায় আরফা বেগম (৩৫) নামে এক বাংলাদেশি নারী গুরুতর আহত হয়েছেন। আহত আরফা বেগমকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উখিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে জালিয়াপালং ইউনিয়নের উত্তর নিদানিয়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ওই গ্রামের মোছাব্বরের ছেলে ছালামত উল্লাহ বান্টু রোহিঙ্গা নারী রাশেদা বেগমেকে বিয়ে করেন। বিয়ের কিছুদিন যেতে না যেতেই ওই নারীকে দিয়ে অসামাজিক কর্মকাণ্ড শুরু করেন বান্টু। পার্শ্ববর্তী বদিউল আলম এসব অপকর্মের প্রতিবাদ করেন। এর জের ধরে আজ সকালে বাড়ি থেকে বাজারে যাওয়ার পথে বড় কবর স্থানের পাশে বদিউলের গতিরোধ করেন বান্টু ও তার স্ত্রী রাশেদা। এই অবস্থা দেখে বদিউলকে বাঁচাতে তার স্ত্রী আরফা বেগম এগিয়ে আসলে তাকে কুপিয়ে আহত করে বান্টু ও রাশেদা। আরফা বেগমের মাথায় এবং শরীরে বিভিন্ন স্থানে আঘাত করা হয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উখিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

আহত আরফার স্বামী বদিউল আলম অভিযোগ করেন, রোহিঙ্গা নারী রাশেদাকে বিয়ের পর ছালামত উল্লাহ বান্টু তাকে নিয়ে এলাকায় অসামাজিক কর্মকাণ্ড শুরু করে। আমি প্রতিবাদ করায় তারা আমার স্ত্রীকে কুপিয়ে আহত করে।

তিনি জানান, এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

জানতে চাইলে উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের জানান, ঘটনা সম্পর্কে তিনি এখনও অবগত নন। অভিযোগ করলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।