ইয়াবা পরিবহন-বিপণনের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড

ডেস্ক নিউজ – মাদকদ্রব্য বহন, সেবন, বিপণন, মদতদাতা ও পৃষ্টপোষকতায় সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান রেখে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১৮ এর খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

সোমবার সকালে প্রধামন্ত্রী কার্যালয়ে চলতি বছরে মন্ত্রিসভার ২৮তম নিয়মিত বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়। মন্ত্রিসভার বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পরে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এ বিষয়ে ব্রিফ করেন।

তিনি বলেন, ‘কোনো ব্যক্তি ৫ গ্রাম পরিমাণের বেশি ইয়াবা বহন, সেবন, বিপণন, মদতদান ও পৃষ্ঠপোষকতা করে, তাহলে তার সর্বোচ্চ শাস্তি যাবজ্জীবন কারাদণ্ড বা মৃত্যুদণ্ডের শাস্তি দেয়া যাবে। তবে যদি এর পরিমাণ ৫ গ্রামের নিচে হয়, তাহলে সর্বনিম্ন শাস্তি ১ বছর এবং সর্বোচ্চ শাস্তি ৫ বছর কারাদণ্ড। এর সঙ্গে অর্থদণ্ডেও দণ্ডিত করা যাবে।’

তবে এ আইনে অর্থের পরিমাণ উল্লেখ নেই বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

তিনি বলেন, ‘হিরোইন, শিশা বা কোকেনের ক্ষেত্রে ২৫ গ্রামের বেশি বহন, সেবন, বিপণন, মদতদান ও পৃষ্ঠপোষকতা করলে তার ক্ষেত্রেও মৃত্যুদণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে। যদি এর পরিমাণ ২৫ গ্রামের কম হয়, তাহলে সর্বনিন্ম শাস্তি রাখা হয়েছে ২ বছর আর সর্বোচ্চ শাস্তি ১০ বছর কারাদণ্ড। এর সঙ্গে অর্থদণ্ডও করা যাবে।’

এ আইনে মূলহোতা অর্থাৎ ব্যাপকভাবে ব্যবসায়িদেরও একই শাস্তির আওতায় আনা যাবে বলে জানান মোহাম্মদ শফিউল আলম।